শিশু মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা,মারধরের অভিযোগ এক ডাক্তারের বিরুদ্ধে

শিশু মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা,মারধরের অভিযোগ এক ডাক্তারের বিরুদ্ধে

শান্তনু বিশ্বাস, বনগাঁ:

উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর জীবন রতন ধর মহাকুমা হাসপাতালে একটি শিশু মৃত্যুর ঘটনায় অভিযোগ ওঠে ডাক্তারের বিরুদ্ধে। এর পাশাপাশি রোগীর পরিবারের সাথে ডাক্তারদের আচরন নিয়েও অভিযোগ ওঠে।

স্থানীয় সুত্রে খবর, ২১শে এপ্রিল সকাল ৮টা নাগাদ গোপালনগরের ভবানীপুরের বাসিন্দা অপু মাতব্বর নামে এক যুবক তার কন্যা সন্তানের সর্দি কাশি ও পায়খানা নিয়ে বনগাঁ হাসপাতালে ভর্তি করে । সারাদিন সব ঠিকই ছিল, সন্ধ্যের পর হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার মতিলাল সাহা শিশুটির পরিবারকে জানায় শিশুটি অনেক সুস্থ আছে। কিন্তু ২২শে এপ্রিল ভোরবেলায় শিশুটির অবস্থা খারাপ হতে থাকে । তখন রোগীর মা কর্তব্যরত ডাক্তার নার্সকে জানালে তারা কোনও কর্নপাত করেনি বলে অভিযোগ। এর কিছুক্ষন বাদে এদিন ভোরেই শিশুটির মৃত্যু হয়। ঘটনায় উত্তেজিত হয়ে পরে শিশুটির পরিবার।

অভিযোগ, মৃত শিশুটির বাবা অপু মাতব্বর ডেথ সার্টিফিকেট নিয়ে শিশুটিকে ওয়ার্ড থেকে আনতে গেলে কর্তব্যরত নার্স দূব্যবহার করে । এরপর নার্সটিকে ভালো ব্যবহার করার অনুরোধ করলে তখন সিস্টারের পক্ষ নিয়ে এক ডাক্তার রিতেশ চক্রবর্তী হঠাৎই শিশুটির বাবা অপু মাতব্বর ও তার দাদা সুজিত মাতব্বরকে ঘুষি মারে।

যদিও এই ঘটনা নিয়ে হাসপাতাল সুপারের কাছে সঠিক বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ করেন শিশুটির বাবা অপু মাতব্বর। বর্তমানে ঘটনায় রোগীর পরিবারের সঙ্গে ডাক্তারদের আচরন নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু হয়েছে।

You May Share This

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.