এক ঝলকে দেখে নিন ২০১৯- এর বাজেট

এক ঝলকে দেখে নিন ২০১৯- এর বাজেট

রাজীব মুখার্জী, হাওড়াঃ স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন ৪০,০০০ থেকে বাড়িয়ে ৫০,০০০ টাকা করা হল। করমুক্ত আয় আড়াই লক্ষ থেকে বেড়ে হল পাঁচ লক্ষ। ৮০ সি-তে বিনিয়োগ করলে আরও দেড় লক্ষ পর্যন্ত কর ছাড় থাকায় সাড়ে ৬ লক্ষ পর্যন্ত আয় করমুক্ত হয়ে যাবে। ৪০ লক্ষ টাকার কম লেনদেন হলে জিএসটি রিটার্ন লাগবে না। পাঁচ কোটির কম লেনদেনের ব্যবসায়ীরা তিন মাস অন্তর জিএসটি রিটার্ন করতে পারবে। আর্থিক ঘাটতি জিডিপি-র ৩.৪ শতাংশ। দেশে চলবে ইলেকট্রিক গাড়ি। তার জন্য তৈরি করা হবে স্টোরেজ ফেসিলিটি। অ্যান্টি ক্যাম কর্ডার সিস্টেম চালু করার পক্ষে কেন্দ্র। বিনোদন শিল্পে ‘সিঙ্গল উইন্ডো’ ক্লিয়ারেন্সের কথা ঘোষণা বাজেটে। প্রত্যক্ষ কর আদায় বেড়েছে।

উত্তর-পূর্বের জন্য বরাদ্দ বাড়ল ২১ শতাংশ। বরাদ্দ করা হল ৫৮,১১৬ কোটি টাকা। পাঁচ বছরে ১ লক্ষ ডিজিটাল ভিলেজ তৈরি করবে সরকার।
প্রতিরক্ষা খাতে বাজেট বরাদ্দ তিন লক্ষ কোটিরও বেশি। ওয়ান র‍্যাংক ওয়ান পেনশনের জন্য ৩৫০০০ কোটি টাকার ঘোষণা পীযূষ গোয়েলের।

৯ মিনিটে পাওয়া যাবে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ। বিনামূল্যে আট কোটি এলপিজি কানেকশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন ভারপ্রাপ্ত অর্থমন্ত্রী। নতুন পেনশন স্কিম। শ্রমিকদের জন্য নিশ্চিত ৩০০০ টাকা পেনশন ঘোষণা, যাদের আয় মাসে ১৫০০০ টাকার কম, এতে উপকৃত হবেন ১০ কোটি কর্মী। এই পেনশন পেতে হলে অসংগঠিত শ্রমিকদের মাসে ১০০ টাকা করে দিতে হবে। ৬০ বছরের পর পেনশন পাবেন তাঁরা। গ্র্যাচুইটির সর্বোচ্চ সীমা ১০ লক্ষ থেকে বাড়িয়ে করা হল ৩০ লক্ষ টাকা। মৎস্যচাষের জন্য আলাদা মন্ত্রক ঘোষণা সরকারের। কৃষকদের অ্যাকাউন্টে বছরে ৬০০০ টাকা দেবে সরকার, যাদের ২ হেক্টরের কম জমি রয়েছে। এটি প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নীতি। ১২ কোটি কৃষক পরিবার উপকৃত হবে। এই নীতির জন্য বরাদ্দ ৭৫ হাজার কোটি টাকা। দরিদ্র মানুষকে খাবার জোগাতে সরকার বরাদ্দ করেছে ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকা।

স্বচ্ছ ভারতের মাধ্যমে ৯৮ শতাংশের বেশি গ্রামীন শৌচাগার তৈরি হয়েছে। ব্যাংকের মূলধনের জন্য ২.৬ লক্ষ কোটি আনা হয়েছে। স্বচ্ছ ব্যাঙ্ককিং ব্যবস্থায় যারা বাধা দিচ্ছিল তাদের আটকানো হয়েছে। ঋন খেলাপিদের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে ৩ লক্ষ কোটি টাকা। ২৩৯ বিলিয়ন ডলার এফডিআই এসেছে গত পাঁচ বছরে। কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ডেফিসিট জিডিপি-র ২.৫ শতাংশ। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যে জি. এস. টি. কমে হলো ৫ শতাংশ। কলকাতা থেকে বারাণসী অব্দি জলপথে পণ্য পরিবহনের ব্যাবস্থা। টি. ডি.এস. -এর উর্দ্ধসীমা বেড়ে হলো ৫০,০০০ টাকা। কমলো ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজে আর্থিক বরাদ্দ ।

You May Share This
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.