রাজ্যের মধ্যে মাধ্যমিকে চতুর্থ স্থান অশোকনগরের দীপ গাইন

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, অশোকনগরঃ

৬ই জুন ঘোষণা হল ২০১৮ সালের মাধ্যমিকের ফলাফল। এই মাধ্যমিকের ফলাফল ঘোষণা হবার পরই আনান্দে উচ্ছাসিত হয়ে পড়ল উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরে ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গাইন পরিবার। এই গাইন পরিবার ছেলে দীপ গাইন এবার মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৬৮৬ নং পেয়ে চতুর্থ স্থান অধিকার করে পরিবার তথা এলাকার সন্মান বাড়িয়ে তোলে, এমনটাই দাবী এলাকাবাসীর। দীপ হাবড়া প্রফুল্ল নগর বিদ্যাপিঠের ছাত্র ছিলো। বরাবরই শান্ত স্বাভাবের ছিলো সে। ক্লাসের প্রথম বেঞ্চে বসতে ভালোবাসার জন্য তার সহপাঠীর তার জন্য ক্লাসের প্রথম বেঞ্চে জায়গা রেখে দিতো। ক্লাসের মেধাবী ছাত্র ছিলো দীপ। প্রতিদিন প্রতিটি ক্লাসের পড়া সঠিক ভাবে করে আসত বলে জানান ওই বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক। শুধু ক্লাসের পড়া নয়, বাড়তি সময় ও গল্পের বই পড়তে ভালোবাসত। একটু সময় কম দিয়ে গৃহশিক্ষক এর পড়া ও খুব ভালো তৈরী করত।

ডাক্তর হবার ইচ্ছায়, নবম শ্রেণী থেকেই দিনে প্রায় সাত থেকে আট ঘণ্টা পড়ার জন্য ব্যায় করত। বাকিটা খেলা ধূলো ও ইঞ্জিনিয়ারং পাঠরতা দিদির সঙ্গে খুনসুটি করে চলে যেতো। অঙ্ক, ভৌতবিজ্ঞান, জীবনবিজ্ঞান ৩ টি বিষয়ে পুরো ১০০ একশো নম্বর পাওয়ার পাশাপাশি, বাংলায় ৯৪, ইংরেজী৯৭, ইতিহাসে ৯৮, ভূগোলে ৯৭ পেয়ে রাজ্যের মধ্যে চতুর্থ স্থান অধিকার করল দীপ। বাড়িতে দুইজন গৃহশিক্ষক এর অক্লান্ত পরিশ্রম বিফলে যেতে দেয়নি দীপ, এমনটাই দাবী পরিবারের সদস্যদের।

ছোট বেলা থেকে কোন অভাব কষ্ট বুঝতে দেয়নি চিকিৎস বাবা। বাবা হাওড়ার বাগনান সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসক। তাই তার বাবার মতো ডাক্তার হতে চায় দীপ। এমন ভালো রেজাল্ট করায় আনান্দিত এলাকাবাসীরা। খবর শোনার পর থেকেই, তারাও উচ্ছাসিত। দীপের বাবা বলেন, ছোট বেলা থেকে ও পড়াশুনায় ভালো ছিলো, ডাক্তার হবার ইচ্ছা বরাবরই, এমন রেজাল্ট করায় আমার খুবই আনন্দিত। এছাড়া গোটা হাবড়া সহ অশোকনগর সকলের মুখে খুশি রয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment