এবার কুশমন্ডিতে রাজনৈতিক সংঘর্ষ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পল মৈত্র, দক্ষিন দিনাজপুরঃ

আদালতের নির্দেশে মনোনয়ন পত্র জমার সময়সীমা বৃদ্ধি পেলেও সন্ত্রাসের বাতাবরন যে এতটুকু কমেনি তার সাক্ষী থাকল দক্ষিন দিনাজপুরের কুশমন্ডিবাসী। অভিযোগ, ২৩শে এপ্রিল বিজেপি সমর্থকরা মনোনয়ন পত্র জমা দিতে গেলে তৃনমূল কর্মীরা বাঁধা দেন বলে অভিযোগ। অপরদিকে তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, বিজেপি জিততে পারবেনা বলে কুশমন্ডিতে সন্ত্রাসের বাতাবরণের সৃষ্টি করছে।

এছাড়া তৃণমূলের আর অভিযোগ, তৃণমুলে টিকিট না পেয়ে বিজেপিতে যাওয়া শঙ্কর পুততুন্ডুর পরিকল্পিত হামলা এটি। যত সময় গড়িয়েছে রাজনৈতিক হামলা ততই তীব্র আকার ধারন করেছে। পুলিশের সামনে বিজেপি সমর্থকরা তৃনমূল সমর্থকদের উপর লাঠি-পেটা করে এবং একজন তৃণমূল সমর্থকের মোটর বাইক কেড়ে নিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে বিজেপি পার্টি অফিসে বন্দি করে রাখা হয় বলেও জানান। যদিও ঘটনার খবর পাওয়ার সাথে সাথে কুশমন্ডি থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করেন কিন্তু পরিস্থিতির ভয়াবহতা লক্ষ্য করে পুলিশ কার্যত পিছু হটে। এরপর ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন এস ডি পি ও, এবং কুশমন্ডি থানার উচ্চপদস্থ আধিকারীকরা।

অন্যদিকে সিপিএমের অভিযোগ এদিন তাদেরকেও মনোনয়ন তুলতে তৃণমুল কর্মীরা বাধা দিলে তারা পথ অবরোধ করে। ফলে যান চলাচল কিছুক্ষনের জন্য ব্যাহত হয়। শুধু তাই নয় ২৩শে এপ্রিল রাজনৈতিক সংঘর্ষের আঁচ এতটাই ছিল যে পুলিশকে লক্ষ্য করে বিজেপি সমর্থকরা ইট পাটকেল ছোড়ে, ফলে সাধারন মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে, দোকানদাররা ভয়ে দোকান বন্ধ করে দেয়।

সম্পর্কিত সংবাদ