নিছক চোর সন্দেহে গনপিটুনির স্বীকার এক টোটো চালক

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজীব মুখার্জি, হাওড়াঃ গোটা দেশ জুড়ে সাম্প্রতিককালে গুজবের জেরে যেভাবে গনপিটুনির ঘটনা ঘটেছে সেই ঘটনাগুলিকে বন্ধ করার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার থেকে কড়া মনোভাব নেওয়া হচ্ছে। প্রচার চালানো হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এমনকি কেন্দ্রীয় সরকার বাধ্য হয়েছে একজন নোডাল অফিসার নিয়োগ করার জন্য। সেখানে দাঁড়িয়ে গতকাল গভীর রাতে হাওড়া জেলার সাঁতরাগাছি থানার অন্তর্গত বাকসাড়া শিবতলায় ঘটল গুজবে গনপিটুনির ঘটনা। এক নিরীহ অসহায় টোটো চালককে নিছক চোর সন্দেহে প্রায় ৬০ থেকে ৭০জন মানুষ মারধর করতে থাকে এক যুবককে।

পরে ঘটনার খবর পেয়ে সাঁতরাগাছি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কোনমতে ওই যুবককে উদ্ধার করে হাওড়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে বর্তমানে সেখানেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা ল্ড়ছে সে। পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ওই যুবকের নাম নাম ফিরোজুদ্দিন মোল্লা।বাড়ি জগাছা থানার অন্তর্গত সুলতান পুরে।

অভিযোগ, সাঁতরাগাছি থানার বিভিন্ন এলাকায় রাতে চোর ঘরে ঢুকে থাকছে। পরে রাত বাড়লে দরজা খুলে সর্বস্ব নিয়ে চম্পট দিচ্ছে । এছাড়া আরও জানা যায়, পুলিশকে এ বিষয়ে বহুবার জানিয়েও কোন লাভ না হয়নি। তাই মাস খানেক ধরে এলাকার বাসিন্দারা রাত জাগা শুরু করেছে।

স্থানীয় সুত্রে খবর, ফিরোজের বাবা নবাবুদ্দিন সাহেব একজন দর্জি। সামনে দিদির বিয়ে বলে ফিরোজ দু-পয়সা অতিরিক্ত আয়ের জন্য রাতের দিকে টোটো চালায় বলে জানা গিয়েছে।

তবে এই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে উঠছে প্রশ্ন।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment