অটো চালকদের বাড় বাড়ন্তে নাজেহাল ব্যারাকপুর

অটো চালকদের বাড় বাড়ন্তে নাজেহাল ব্যারাকপুর

 

অরিন্দম রায় চৌধুরী, ব্যারাকপুরঃ এক সময় অটোর প্রয়োজনীয়তা আর সকল যাতায়াতের মাধ্যমের সাথে খুবই জরুরী হয়ে পরেছিল আর তাই অটো রিক্সার প্রয়োজনীয়তা দিন দিন নিত্য যাত্রীদের কাছে বেড়ে চলে। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সেই নিত্য প্রয়োজনই আজ মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে নিত্য যাত্রী থেকে শুরু করে প্রশসনের কাছে। কখনও অটো থেকে ছোট্ট বাচ্চা কে পড়ে যেতে দেখেও অটো চালক তার অটো না থামিয়ে দিব্যি চলে যায় আর রাস্তায় পড়ে ছোট্ট বাচ্চা মেয়েটি যন্ত্রণায় কাতরায় তখন সকলের মনে প্রশ্ন জাগে, মানুষ কি এতটা অমানবিক হতে পারে?

৩১শে আগস্ট, ২০১৮ ব্যারাকপুর ষ্টেশন সংলগ্ন রাস্তায় বেলা ১টা ৫০ নাগাদ একটি ব্যারাকপুর কোর্ট যাওয়ার একটি অটো যার নম্বর WB25C4424 ধাক্কা মারে এক পৌঢ়কে। সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় ছিটকে পড়েন জনৈক পৌঢ় পথচারী। কাছেই কর্তব্যরত ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের ট্র্যাফিক বিভাগের সিভিক ভলেন্টিয়ার দীপঙ্কর মজুমদার দৌড়ে এসে প্রথমে পৌঢ় ভদ্রলোককে রাস্তা থেকে তুলে নিরাপদ স্থানে বসায় ও অটোটিকে আটকায়। আর এখানেই দেখা যায় অটো চালকের এক অদ্ভুত অমানবিক রুপ। অটো চালক গদাই ব্যানার্জি নিজের অটো থেকে প্রথমেই সিভিক ভলেন্টিয়ারের জামার কলার ধরে রীতিমত আক্রমণাত্মক ভাবে জানতে চায় কেন আটকানো হল তাকে। সিভিক ভলেন্টিয়ার দীপঙ্কর মজুমদার তাকে তার অমানবিক কর্মের কথা মনে করাতেই অটো চালক গদাই ব্যানার্জি দীপঙ্করের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ও বেধড়ক মারতে থাকে। এমনকি দীপঙ্করের হাতে থাকা পুলিশের ওয়্যারলেস সেটটিও ভেঙ্গে ফেলে, অন্তত এমনটাই অভিযোগ করেন নিগৃহীত সিভিক ভলেন্টিয়ার দীপঙ্কর মজুমদার।

এদিকে খবর পাওয়া মাত্র স্থানীয় টিটাগড় থানার পুলিশ এসে অভিযুক্ত অটো চালক গদাই ব্যানার্জিকে আটক করে ও অভিযোগকারী সিভিক ভলেন্টিয়ারের নির্দিষ্ট অভিযোগের উপর ভিত্তি করে বেশ কয়েকটি ধারায় যার মধ্যে সরকারী কর্মচারীকে কর্তব্যরত অবস্থায় তার কাজে বাধাদান ও মারধরের মত ধারা দিয়ে একটি কেস রুজু করে।

অপরদিকে এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে ব্যারাকপুর অটো ইউনের পদাধিকারীর বক্তব্য, “আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি ও আমরা চাই আইন আইনের মতই চলুক। এই ঘটনায় জড়িত অভিযুক্ত অটো চালকের বিরুদ্ধে আইন যা সাজা দেবে তা আমরা মাথা মেতে নেব ও আগামী দিনে প্রয়োজনে এই অটো চালকের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতেও পিছ পা হবো না।”

ব্যারাকপুরের এই ঘটনায় স্থানীয় নিত্য যাত্রীরা রীতিমত তাদের ক্ষোভ উগ্রে দিয়েছে সংবাদ মাধ্যমের সামনে। তারা ব্যারাকপুরে এই অমানবিক অটো চালকের উপযুক্ত স্বাস্তি দাবী করেন।

You May Share This
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *