সিসি টিভির ফুটেজ দেখে ধৃত ৫ বাংলাদেশি চোর

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, বনগাঁ:

৯ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ বনগাঁ থানার অন্তর্গত মতিগঞ্জ এলাকায় ভ্যারাইটিস দোকানে চুরি। ঘটনার দরুন ৫জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে বনগাঁ থানার পুলিশ। ধৃতদের নাম ফারুক হোসেন (৩৫), প্রতাপ বিশ্বাস(৪০), কিবলিয়া মোল্লা, জয়সাল মিরধা (২৫), যশোর বসুন্দিয়া এবং বাবু খাঁ (৪০)।

সুত্রের খবর, এদিন সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ বনগাঁ থানার অন্তর্গত মতিগঞ্জ এলাকায় সৌরভ সেন নামে বাগদা রোডের পাশের ভ্যারাইটিস মালপত্রের দোকানে ৫ জন যুবক মালপত্র কিনতে আসে। এরপর তারা বিভিন্ন মালপত্র দেখতে থাকে৷ দোকানির ব্যস্ততার সুযোগ নিয়ে তারা ৬৫০০ নগদ টাকা নিয়ে চম্পট দেয় ৷ এরপর দোকানের মালিক সৌরভ সেন বনগাঁ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশি সুত্রে খবর, এদিন ঘটনার খবর পাওয়ার পর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেন বনগাঁ থানার পুলিশ। তদন্তে নেমে পুলিশ রাস্তায় লাগানো ক্যামেরার সিসি টিভির ফুটেজ দেখে পাঁচ জন অভিযুক্তকে চিহ্নিত করেন ৷ এরপর অনুসন্ধান শুরু করে বনগাঁ বাটা মোড়ে একটি দোকানে ঢোকে ঐ পাঁচ যুবক ৷ খবর পেয়ে পুলিশ বাটামোড় থেকে ঐ পাঁচ যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ জেরা করে ধৃতদের কাছ থেকে জানতে পারেন তাদের নাম ফারুক হোসেন (৩৫), প্রতাপ বিশ্বাস (৪০), কিবলিয়া মোল্লা, জয়সাল মিরধা (২৫), যশোর বসুন্দিয়া এবং বাবু খাঁ (৪০) এবং এরা প্রত্যেকেই খুলনা বাংলাদেশের বাসিন্দা।

তদন্ত সুত্রে জানা যায়, ধৃত ৫ বাংলাদেশী যুবকের মধ্যে বাবু খাঁ বিড়া ও বাকি দুইজন প্রায় তিন বছর ধরে ভারতের তামিলনাড়ুতে থেকে রাজ মিস্ত্রীর কাজ করত এবং ফারুক হোসেন সম্প্রতি পাসপোর্টে ভারতে আসে বলে জানায়। যদিও বর্তমানে পুলিশ গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন এরা আর কোন অপরাধের সঙ্গে যুক্ত আছে কিনা ৷ তবে ১০ই এপ্রিল বনগাঁ থানায় পুলিশ অভিযুক্তদের হেফাজতে চেয়ে ধৃতদের কোর্টে পাঠায়।

সম্পর্কিত সংবাদ