সেচের অভাবে ক্ষতির মুখে চাষ, মাথায় হাত কৃষকদের

সেচের অভাবে ক্ষতির মুখে চাষ, মাথায় হাত কৃষকদের

পল মৈত্র, দক্ষিণ দিনাজপুর:

প্রায় একমাস ধরে বিকল ট্রান্সফর্মার। তাই বিদ্যুতের অভাবে সেচ বন্ধ। জলের অভাবে নষ্ট হতে বসেছে বোরো ধানের চারা। ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন বালুরঘাট ব্লকের চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের মামনা এলাকার শতাধিক কৃষক। তাঁরা বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানির বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ তুলেছেন। প্রশাসনকে সমস্যার কথা জানিয়েও কাজ হয়নি।

গত বর্ষায় বন্যার জেরে আমন চাষে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছিলেন চকভৃগু এলাকার কৃষকরা। বিদ্যুতের অভাবে সেচ দিতে না পেরে এবার বোরো চাষেও তাঁরা ক্ষতির আশঙ্কা করছেন। এলাকার একমাত্র ট্রান্সফর্মারটি মাসখানেক ধরে বিকল। অথচ এলাকায় চাষে সেচের জন্য ওই ট্রান্সফারমারই ভরসা কৃষকদের। ওই ট্রান্সফর্মার থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে কৃষকরা পাম্প চালান এবং তার জেরে এলাকায় প্রায় ৩৫ একর জমিতে সেচ হয়।

ট্রান্সফরমার বিকল হওয়ার ঘটনা বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানি, কৃষি দফতর এবং ব্লক ও জেলা প্রশাসনকে জানিয়েও লাভ হয়নি। কিছুদিন এলাকার একটি পুকুর থেকে জল নিয়ে কৃষকরা সেচের কাজ করেছিলেন। কিন্তু এখন সেই পুকুর শুকিয়ে গিয়েছে। ফলে কৃষকদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে।

স্থানীয় কৃষক টগর সরকার বলেন, “ধানের চারা জল না পেলে নষ্ট হয়ে যাবে। বার বার বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানিকে জানালেও শুধু আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। কাজের কাজ কিছুই হয়নি। সমস্যা না মিটলে মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হব।”

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *