বেআইনি মদের ঠেক উচ্ছেদে প্রহৃত বিজেপি নেত্রী সহ গ্রামের মহিলারা

বেআইনি মদের ঠেক উচ্ছেদে প্রহৃত বিজেপি নেত্রী সহ গ্রামের মহিলারা

শান্তনু বিশ্বাস, মাটিয়া:

২ রা মার্চ বসিরহাটের মাটিয়া থানার অন্তর্গত ঘোড়ারাস পঞ্চায়েতের জয়পুর কালিবাড়ি এলাকায় গ্রামের মহিলারাই বেআইনি মদের ঠেক উচ্ছেদে করেন। আর তাদের এই কর্মকাণ্ডে সাহায্য করেন মাটিয়া থানার ঘোরারাস কুলীনগ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি পঞ্চায়েত সদস্য তথা নেত্রী তৃপ্তি কাহার। যদিও এর দরুন স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের হাতে প্রহৃত হন স্থানীয় বিজেপি নেত্রী সহ গ্রামের অন্যান্য মহিলারা। এই ঘটনার জেরে আপাতত গ্রেফতার ২ জন।

সুত্রের খবর, মাটিয়া থানার অন্তর্গত ঘোড়ারাস পঞ্চায়েতের জয়পুর কালিবাড়ি গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে মদ বিক্রি হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে ধনঞ্জয় কাহার নামে এক মদ বিক্রেতার বিরুদ্ধে। আর এই বেআইনি মদের ঠেক উচ্ছেদের জন্য এর আগেও বহুবার স্থানীয় থানায় অভিযোগ করেন গ্রামের সদস্যরা। কিন্তু তাদের অভিযোগে পুলিশ কোনপ্রকার ব্যবস্থা না নেওয়ায় ২রা মার্চ সন্ধ্যার পরে গ্রামের মহিলারা স্থানীয় বিজেপি নেত্রী তৃপ্তি কাহারের উদ্যোগে মদ বিক্রির প্রতিবাদ করতে যান। তখন প্রতিবাদী মহিলাদের উপর হামলা চালান ধনঞ্জয় কাহার ও তাঁর পরিবারের লোকেরা। পাশাপাশি প্রতিবাদ করতে গিয়ে আক্রান্ত হন পঞ্চায়েত সদস্য সহ আরও পাঁচ জন মহিলা।

অভিযোগ, এলাকায় তৃণমুল কর্মী হিসাবে পরিচিত ধনঞ্জয়। তাই দলীয় প্রভাব খাটিয়ে গ্রামের মধ্যে মদ বিক্রি করত বলে ধনঞ্জয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন তৃপ্তিদেবী। এমনকি এর জেরে মাটিয়া থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছিলেন গ্রামের মহিলারা। কিন্তু পুলিশ কোনও উদ্যোগ না নেওয়ায় তৃণমুল কর্মীর বাড়ি মদ বিক্রি বন্ধ করতে বিজেপি নেত্রীর উদ্যোগে মহিলারা এগিয়ে আসায় এদিন রাতে মহিলাদের মারধর করা হয় বলে জানান বিজেপি নেতা সুকল্যান বৈদ্য।

পুলিশি সুত্রে খবর, এই ঘটনার পর মাটিয়া থানার পুলিশ মিতালি কাহার ও কনিকা মন্ডল নামে দুই মহিলাকে গ্রেফতার করেন। ধৃতদের ৩ রা মার্চ বসিরহাট মহকুমা আদালতে পাঠানো হয়।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *