পঞ্চায়েত সমিতি গঠন নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বোমাবাজী, উদ্ধার তাজা বোমা

শান্তনু বিশ্বাস, দেগঙ্গাঃ পঞ্চায়েত সমিতি গঠন নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বোমাবাজী, উদ্ধার তাজা বোমা। দেগঙ্গায় সমিতির সভাপতি হলেন জনাব মফিদুল হক শাহাজি নামে এক তৃণমূল নেতা। প্রসঙ্গত, দেগঙ্গায় ছিল সিপিএমের লাল দূর্গ। সিপিএমের সেই লাল দূর্গ তৃণমূলের উন্নয়নের কাছে হার মানে। ব্যপক হারে সিপিএমকে পরাস্ত করে তৃণমূল জয় লাভ করে। তৃণমূল জয়লাভ করার পর, কে হবে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি? তাই নিয়ে এলাকায় একটা চাপা উত্তেজনা ছিল। তৃণমূল বিধায়ক রহিমা মণ্ডল ও দেগঙ্গা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি মিন্টু সাহাজী এর আগেও খবরের শিরোনামে ছিল। অভিযোগ, সোমবার সকালে যখন টান-টান উত্তেজনার…

অশোকনগরে দেনার দায়ে আত্মহত্যা

শান্তনু বিশ্বাস, অশোকনগরঃ দেনার দায়ে বাড়ির সামনের একটি গাছে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হলেন এক ব্যাক্তি। ঘটনাটি ঘটে অশোকনগর থানার অন্তরগর্ত দোগাছা কুমারডাঙ্গা এলাকায়। বছর ৫৩-এর সুনীল ঘোষের পরিবারের দাবী, সুনীল ঘোষ পেশায় চাষী। দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক রোগ ভোগে বাড়িতে ছিলেন। ফলে বেশ কিছু দেনা সংস্থা থেকে মোটা অঙ্কের লোন নেয় সে। পাশাপাশি দূর সম্পর্কের আত্মীয় দেগঙ্গা থানার অন্তরগর্ত রামপুরের বাসিন্দা পিন্টু ঘোষের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা ধার নেয়। কিছুদিন যাবদ সবাই টাকার চাপ দিচ্ছিল, ফলে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। সুনীল ঘোষের ৩ মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে সংসার। সকালে রোজকার…

রাজনৈতিক বিরোধিতার প্রশাসনিক তৎপরতার নির্দেশ

রাজীব মুখার্জী, নবান্ন, হাওড়াঃ বিগত ১০ বছরের মধ্যে এভাবে রাজ্য সরকার বনধের বিরোধিতায় নেমেছেন এ ঘটনাকে আমরা বিরল আমরা বলতেই পারি এই বাংলায়। ২৪শে সেপ্টেম্বর, সোমবার রাজ্য সরকারের অর্থদপ্তরের অডিট বিভাগের যে বিজ্ঞপ্তি বেরিয়েছে, তা থেকে একটি বিষয় জলের মত পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। মুখ্য মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তার সরকার যেকোনও মূল্যে বিজেপির ডাকা বনধ আটকাতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। তাই কর্মীদের সতর্ক করতে গতকাল নবান্নে অর্থসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী তার সাক্ষর করা বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মতো। এই বিজ্ঞপ্তি পরে বোঝা যাচ্ছে রাজনৈতিক, প্রশাসনিক ও সাংগঠনিক ভাবে এই বনধের বিরোধিতা…

পেটের তাগিদে গাছে উঠে বিদ‍্যুৎস্পৃষ্ঠ হয়ে মৃত্যু, আঙ্গুল উঠেছে ইলেকট্রিক সিটি বোর্ডের দিকে

অমিয় দে, দক্ষিন ২৪ পরগনাঃ রোজকারের মতো ২৪শে সেপ্টেম্বর সোমবারও পেটের তাগিদে সকাল সকাল বাড়ি থেকে বেরোয় অশোক ঘড়ই নামে এক ব‍্যাক্তি রোজগারের জন্য। কিন্তু তার আর জলজ্যান্ত বাড়ি ফেরা হল না। হত দরিদ্র খেটে খাওয়া পরিবারের মানুষ গুলো একদিন কাজে না বেড়োলে যে পরিবারের সদস্যদের না খেয়ে কাটাতে হবে সারাদিন। আর নারকেল গাছে উঠে এভাবে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যে মৃত্যুর কলে ধলে পড়তে হবে তাকে, তা কেউ ভাবতেও পারেননি পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু তার কাজতো করতেই হবে, গাছ থেকে নারকেল, ডাব, বিক্রি করে উপার্জন করাই হলো তার পেশা। কিন্তু এদিন সকালে…