দেশের অন্যতম ২৫টি নোংরা শহরের মধ্যে ১৯টিই পশ্চিমবঙ্গের !!

  অরিন্দম রায় চৌধুরী, ব্যারাকপুরঃ সম্প্রতি কেন্দ্রীয় আবাসন ও নগরোয়ন্নন মন্ত্রকের এক সার্ভে রিপোর্টে উঠে এসেছে এমন তথ্যই৷ তালিকায় রয়েছে, দার্জিলিং, শিলিগুড়ি, শ্রীরামপুর, মধ্যমগ্রাম, উত্তর বারাকপুর, বাঁকুড়ার নাম৷ বিভিন্ন স্যানিটেশন ইন্ডিকেটরের নিরিখে এই রিপোর্ট পেশ করা হয়৷ এরমধ্যে ছিল আবর্জনার ঠিকমত সাফাই, বর্জ্য পদার্থের যথাযথ নিকাশি ব্যবস্থা, খোলা জায়গায় শৌচকর্ম করা৷ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, তিনটি ক্ষেত্রেই বাংলার বহু জায়গার ছবি হতাশাজনক৷ অতএব স্বচ্ছতা সর্বেক্ষণ সার্ভে-২০১৮ এ যে ডাহা ফেল পশ্চিমবঙ্গ তা বলাই বাহুল্য। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে ভারতের ১ লাখের বেশি জনসংখ্যা বিশিষ্ট ৫০০ শহর ও রাজ্যগুলোর উপর পরিস্কার…

হাসনাবাদ ইছামতি নদীর জলে পরে নিখোঁজ এক প্রতিবন্ধী নাবালিকা, যাত্রী পারাপারের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে ফেরী

  শান্তনু বিশ্বাস, হাসনাবাদঃ আর পাঁচটা দিনের মতো ২৭শে জুন, বুধবার সকালে বেরিয়েছিল প্রতিবন্ধী পিঙ্কি। উওর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ পঞ্চায়েতের রাজনগর গ্রামের বাসিন্দা পিঙ্কি ছিল শারিরীক ভাবে প্রতিবন্ধী। বিকল ডান হাত ও ডান পা নিয়ে হাসনাবাদ শাখায় ট্রেনে ভিক্ষা করে কনো রকমে ভাবে দিন যাপন করত পিঙ্কি। হাসনাবাদ ঘাট থেকে সকাল ৮ টা নাগাদ নৌকায় করে নদী পার হওয়ার সময় আচমকাই মাঝ নদীতে নৌকা থেকে পড়ে যায় সে, এবং ইতি মধ্যেই জলে তলিয়ে যাওয়ায়, তাকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হন নৌকা চালকরা। পরে তাকে উদ্ধার করতে ইছামতীতে যৌথ ভাবে…

বাংলাদেশি ট্রাকের ধাক্কায় মৃত্যু হল এক ভারতীয় শ্রমিকের

  জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বনগাঁ পেট্রাপোল থানা এলাকার পেট্রাপোল আইসিপিতে বেলা একটা নাগাদ দক্ষিন ছয়ঘরিয়া এলাকার বাসিন্দা চিত্তরঞ্জন দাস (৫৩) নামে এক শ্রমিক ফুলবাগানে জল দিচ্ছিল, বাংলাদেশ থেকে ভারতে মাল খালি করতে আসা একটি ট্রাক তাকে পেছন থেকে ধাক্কা মারে৷ ঘটনাটি ঘটার পর তাকে স্থানীয় শ্রমিকরা বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়, কিন্তু ডাক্তাররা তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন৷ উত্তেজিত ভারতীয় শ্রমিকরা ওই বাংলাদেশি ট্রাক চালককে বেধারক মারধর করে৷ তাকেও গুরুতর অবস্থায় বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চোর ধরা পড়লো পুলিশের হাতে

  জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ সপ্তাহ খানিক আগে বাগদা থানা এলাকার বাসিন্দা জামাল মন্ডল বনগাঁ হাসপাতাল এলাকায় একটি ওষুধের দোকান থেকে ওষুধ কিনে টাকা দিতে গিয়ে দেখে তার পকেটে টাকা নেই৷ বনগাঁ থানায় অভিযোগ করতেই ওই ওষুধের দোকানের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তদন্তে নামে পুলিশ। ২৭শে জুন, বুধবার দুপুরে বনগাঁ কোর্টমোড় এলাকা থেকে হাবড়া থানা এলাকা বাসী আনারুল শেখ (২২) নামক এক যুবককে গ্রেফতার করে, উদ্ধার হয় টাকা।

সাইকেল চোর ধরল বনগাঁ থানার পুলিশ

  জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বনগাঁ থানা এলাকার ঘাটবাঁওড় অঞ্চলের আদর্শ বিদ্যালয়ে লাবনি সরকার নামে এক স্কুল ছাত্রীর সাইকেল চুরি যায় ১৯শে জুন দুপুর বেলা স্কুল থেকে। পাশের গ্রাম সুটিয়া থেকে এসে প্রত্যহ স্কুল মাঠে সাইকেল রেখে ওই ছাত্রী ক্লাস করেছিল সেদিনও। হটাৎ বাইরে এসে দেখে তার সাইকেলটি নেই৷ পরে স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ তদন্তে নেমে বনগাঁ থানার ঘোলা কালুপুরের বাসী মিলন দাস (২৭) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে ২৭শে জুন, বুধবার বনগাঁ মহকুমা আদালতে পাঠিয়েছে। চুরি হওয়া সাইকেলও উদ্ধার হয়েছে। পুলিশ তদন্তে করে জানতে পারে মিলন দাস অতিতে একটি ডাকাতির…

বনগাঁয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার হল ৩ দুষ্কৃতী

  জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ গোপনসূত্রে খবর পেয়ে বনগাঁ থানার পুলিশ ২৬শে জুন, মঙ্গলবার গভীর রাতে বাজিতলা এলাকা থেকে তিনজন দুষ্কৃতী কে গ্রেফতার করে। শুভ বিশ্বাস (৩০), সুশান্ত দাস (২৫), সনজিব মন্ডল (১৯) নামে এই তিন যুবকদের কাছ থেকে উদ্ধার হয় একটি দেশি বন্দুক, এক রাউন্ড গুলি এবং আয়রন রড৷ পুলিশ তিন জন কে ডাকাতির উদ্দেশ্যে জড়ো হওয়ার অভিযোগে ২৭শে জুন, বুধবার বনগাঁ মহকুমা আদালতে পাঠিয়েছে৷

মদ উচ্ছেদ মহিলা কমিটি জমা দিল থানায় ডেপুটেশন

  পল মৈত্র, বুনিয়াদপুর, দক্ষিন দিনাজপুরঃ বুধবার দুপুরে দক্ষিন দিনাজপুর জেলার বুনিয়াদপুর বংশীহারী থানায় প্রায় শতাধিক মহিলাদল ডেপুটেশন জমা দিলেন, মদ উচ্ছেদ মহিলা কমিটির পক্ষ থেকে এদিন বুনিয়াদপুর শহর থেকে পায়ে হেটে পরিক্রমা করে থানায় উপস্থিত হন এবং ডেপুটেশন জমা দেওয়া হয়। উল্লেখ্য মঙ্গলবার বুনিয়াদপুর সরাইহাটের এক আদিবাসী এলাকায় (যারা চোলাই মদ বিক্রী করেন) তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিক্রি বন্ধের জন্য মদ উচ্ছেদ মহিলা কমিটির প্রায় শতাধিক মহিলারা প্রতিবাদ জানালে অত্র এলাকার আদিবাসীরা মহিলাদের উপর লাঠি নিয়ে চড়াও হন। পাশাপাশি সেই ঘটনায় ৩ জন মহিলা আহত হন। ঘটনার খবর পেয়ে…

সাবধান!! ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে আসা লিঙ্কে ক্লিক! হতে পারেন ব্ল্যাকমেলের শিকার

  ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গলটুডেঃ সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে আজ সবার হাতেই নানা মেসেজিং অ্যাপ। আর সেই অ্যাপ মারফৎ প্রতিদিনই আসছে নানা রকমের মেসেজ নানা অজানা স্থান থেকে। আবার কিছু কিছু মেসেজের সঙ্গে আসে নানা লিঙ্ক যার সাহায্যে মুহূর্তের মধ্যেই যাওয়া যায় বিভিন্ন ওয়েবসাইটে। কিন্তু এই লিঙ্কই যে মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়াবে তা বুঝতে পারেনি সোনারপুরের বাসিন্দা এক কিশোর। সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে মুহুর্তের অসাবধানতার খেসারত দিতে হচ্ছে এক কিশোরকে। বান্ধবীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ মুহুর্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা দাবির অভিযোগ। সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করার পাশাপাশি ভবানীভবনে সাইবার ক্রাইম বিভাগে…