শিলিগুড়ি ও কলকাতার যৌথ উদ্যোগে দুই বাংলার শিল্পীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ইচ্ছেবাড়িতে

  ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি, বেঙ্গল টুডেঃ শ্রাবনের শেষ সন্ধ্যায় শিলিগুড়ির ইচ্ছেবাড়িতে কলকাতার ‘ছায়ানট’ এবং শিলিগুড়ির ‘অর্চকের’ যৌথ উদ্যোগে বিদ্রোহী কবি নজরুল ইসলামের স্মরণে আয়োজন করা হয়েছিল এক অভিনব সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। অনুষ্ঠানটিতে বিশেষ আকর্ষণ কেড়েছিল ‘বাঁশরী’ নামক বাংলাদেশের এক সংস্থা।  বাংলাদেশ, কলকাতা ও শিলিগুড়ির বিখ্যাত নৃত্যশিল্পী, সঙ্গীত ও বাচিক শিল্পীদের ভিড়ে ইচ্ছেবাড়ির প্রাঙ্গন আলোকিত হয়ে ওঠে। বাংলাদেশের সঙ্গীত শিল্পী পরদেশী সিদ্দিকী ছিলেন বিশেষ অতিথি। কলকাতার থেকে এসেছিলেন সঙ্গীত শিল্পী অনির্বান দাসগুপ্ত এবং আবৃত্তিকার অর্ণব মুখার্জি ও ইন্দ্রানী লাহিড়ী। অনুষ্ঠানের শেষে শিল্পী শ্রীমতী সোমঋতা মল্লিক সঙ্গীত পরিবেশন করে সমস্ত দর্শকদের মুগ্ধ করেছিলেন।…

শিলিগুড়ির ইছেবাড়িতে অনুষ্ঠিত হল প্রথম ওমেন্স আর্টিস্ট আর্ট এক্সিবিশন

  ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি, বেঙ্গল টুডেঃ শিলিগুড়ি সহ সিকিমের মহিলা শিল্পীদের নিয়ে প্রথম ওমেন্স আর্টিস্ট আর্ট এক্সিবিশন অনুষ্ঠিত হল শহরের ইছেবাড়িতে। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিলিগুড়ির বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী প্রকাশ কান্তি দে, শিলিগুড়ির বিশিষ্ট কবি ও লেখক শুভময় সরকার সহ ইচ্ছেবাড়ির কর্নধার অভয়া বসুর পাশাপাশি বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী ও চিত্রপ্রেমীরা। শিলিগুড়ির বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী প্রকাশ কান্তি দে, শিলিগুড়ির বুটিক তথা বনেদি রেস্তরা ইচ্ছেবাড়ির কর্ণধার অভয়া বসুর হাতে একটি দেওয়াল চিত্র তুলে দিচ্ছেন।

শিলিগুড়িতে আদিকবি ভানুভক্তের ২০৫ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন

  ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি, বেঙ্গল টুডেঃ শহর জুড়ে নেপালি থেকে শুরু করে সমস্ত সম্প্রদায়ের তথা সরকারি ও বেসরকারি স্তরের পক্ষ থেকে আয়োজন করা হয় আদি কবির স্মরণ সভা।  এদিন শিলিগুড়ি ভানু জয়ন্তী সমারোহ সমিতির উদ্যোগে শহরের দীনবন্ধু মঞ্চে আয়োজন করা আদি কবির স্মরণ সভা। সেখানে রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবকে আচার্য ভানু ভক্তের ছবিতে মাল্যদান ও পুষ্পার্ঘ্যের পর প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও অনুষ্ঠানের শুভসূচনা করতে দেখা যায়। এছাড়াও ভানুভক্ত জয়ন্তী সমিতির পক্ষ থেকে স্থানীয় হিলকার্ট রোড স্থিত আদি কবির মূর্তিতে মাল্যদান ও নানান সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই বিশেষ…

রবীন্দ্র নজরুল সন্ধ্যা উদযাপন শিলিগুড়ির সরোজিনী সংঘ পাঠাগারে

ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি, বেঙ্গল টুডেঃ বুধবার শিলিগুড়ির শিবমন্দির এলাকায় সরোজিনী সংঘ ও পাঠাগারে রবীন্দ্র-নজরুল সন্ধ্যার এক অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ছবিতে মাল্যদান করে এবং প্রদীপ প্রজ্জলন দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে খুদে স্নেহাশীষ রায় কবি নজরুলের “প্রভাতী” কবিতা আবৃত্তি করে শোনায়। আর এক খুদে সৃজন সরকার কবিগুরুর “প্রশ্ন” আবৃত্তি করে। অন্যদিকে, এবছর মাধ্যমিক পাশ সুদামনি মন্ডল কবিগুরুর ওপর বক্তব্য রাখে। খুদে বেহালা বাদক সুনয়ন দত্ত বেহালার সুরে ৩টি রবীন্দ্র সংগীত সবার সামনে উপস্থাপন করে সবার মন জয় করে। ছোটদের পাশাপাশি বড়রাও…

শিলিগুড়িতে অনুষ্ঠিত হলো ঘোড়সওয়ার সাহিত্য পত্রিকার বার্ষিক অনুষ্ঠান

  ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি, বেঙ্গল টুডেঃ সোমবার শিলিগুড়ির এক অতি পরিচিত সাহিত্য পত্রিকা, “ঘোড়সওয়ার”য়ের বার্ষিক সাহিত্যানুষ্ঠান শহরের সুভাষপল্লীতে অনুষ্ঠিত হল। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা থেকে আগত বিশিষ্ট তরুণ কবি শ্রী গৌরব চক্রবর্তী ও প্রচ্ছদ শিল্পী শ্রী রাজদীপ পুরী। শিলচরের এগারো জন ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এগারোটি প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে এদিনের অনুষ্ঠানের শুভসূচনা হয়। উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশন করে ”মনন”য়ের শিল্পীরা। অনুষ্ঠানের প্রাক্কালেই গুণীজনদের সম্বর্ধনা দেওয়া হয় এবং তা শেষে শুরু হয় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যানুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে ছিল গীটারে রবীন্দ্রসঙ্গীত, ঘোড়সওয়ার পত্রিকার হাতে লেখা নবপত্রিকার মোড়কোন্মোচন তথা বিশিষ্ট কবিদের…

আমার জীবনকথা ভাগ-১২

হাওড়াবাসীর নানা রঙের দিনগুলি ভাগ-৭ রোটারিয়ান স্বপন কুমার মুখোপাধ্যায়   নিউমার্কেট-এ রাত্রি ১০ টা থেকে সকাল ৬ টা আর দিনের বেলায় হাওড়া রোডের ওপর একটি ছোট কারখানায় বেলা ১১ টা থেকে বিকেল ৫ টা। নিউমার্কেটে রাতের সমস্ত অসামাজিক কাজ দৃঢ়হস্তে সব বন্ধ করে দেওয়ার ফলে আমার কর্মস্থলের অনেক লোক ও সহকর্মীরা শত্রু হলেও আমার পরম সৌভাগ্য আমি লোকনাথ বল ও দুজন মেয়রের আস্থাভাজন হতে পেরেছিলাম। লোকনাথ বল আমাকে দিনের ডিউটিতে আণার ফলে আমি কারখানার কাজ ছেড়ে দিতে বাধ্য হই। পরিবর্তে বাড়িতে কিছু ছাত্র পড়াতে শুরু করি- সংসারের আর্থিক প্রয়োজনে। সংসার…

আমার জীবনকথা ভাগ-১১

হাওড়াবাসীর নানা রঙের দিনগুলি ভাগ-৬ রোটারিয়ান স্বপন কুমার মুখোপাধ্যায়   পিতৃদেবের অকাল প্রয়াণে আমাকে সংসার পালনের দায়িত্ব নিতে হয়। পিতার পরলৌকিক কাজ শেষ হবার পর আমার রাঙাদাদু অর্থাৎ আমার মাতৃদেবীর ছোট মামা শ্রী কে. ডি. গাগুলি, আইএএস তৎকালীন বিধান রায়ের মন্ত্রীসভার Land and Revenue Department-এর Secretary আমাদের হাওড়ার বাড়িতে এসে আমাকে সঙ্গে নিয়ে হাওড়া জেলার Land & Settlement Officer কে. সি. বর্মণের কাছে নিয়ে যান এবং ওখানে আমার চাকরির ব্যবস্থা করে দেন। ওখানে আমি এক মাস চাকরি করি। ইতিমধ্যে কলকাতার মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের অধীন নিউ মার্কেটে সার্জেন্ট পদে আমি চাকরিতে যোগদান…

আমার জীবনকথা ভাগ-১০

হাওড়াবাসীর নানা রঙের দিনগুলি ভাগ-৫ রোটারিয়ান স্বপন কুমার মুখোপাধ্যায়   সেইসময় বিয়েবাড়ি ভাড়া করার বা ক্যাটারার দিয়ে আমন্ত্রিতদের আপ্যায়ন করা হত না। বেশিরভাগ পরিবার ছিল একান্নবর্তী। আত্মীয় -পরিজনরা বিবাহের কয়েকদিন আগেই বিয়েবাড়িতে পৌঁছে যেতেন। বিয়ের আগের দিন বাড়িতে হালুইকররা এসে ভিয়েন বসিয়ে মিষ্টি বানাতো। মিষ্টির মধ্যে দরবেশ, পান্তয়া অথবা রসগোল্লা আর সন্দেশ তৈরি হত। দই আসতো মিষ্টির দোকান থেকে, বাড়ির ছেলেরা আগের দিন কাঁচাবাজার করে আনতো। বাড়ির মেয়েরা প্রয়োজন ভিত্তিক আনাজ কাটতো, পান সাজতো, হালইকরদের জোগাড়েরা বাটনা বাটতো আর জল সরবরাহ করত। ডেকরেটর এসে প্যান্ডেল বাঁধতো আর বাসনপত্র, মাটিতে বসার…

আমার জীবনকথা ভাগ-৯

হাওড়াবাসীর নানা রঙের দিনগুলি ভাগ-৪ রোটারিয়ান স্বপন কুমার মুখোপাধ্যায় ১৯৫১ থেকে ১৯৫৩ সালের মধ্যে আমাদের বালির বাড়ির মাঠে পরপর ৪টি অনুষ্ঠান হয়। (১) ‘মিশর কুমারী’ নাটকে আমার পিতৃদেব ও ন’ কাকু যথাক্রমে সম্রাটের ও সায়ার চরিত্রে অভিনয় করেন। (২) ‘চন্দ্রগুপ্ত’ নাটকে ছবি বিশ্বাস, জহর গাঙ্গুলি, সরযুবালা, রানীবালা, পূর্ণিমা, মিহির ভট্টাচার্য, রণজিৎ রায়, কমল মিত্র, (৩) ‘দুই পুরুষ’ নাটকে আমার ছোটকাকু, (৪) আর সঙ্গীত আসরে তারাপদ চক্রবর্তী, আলী আমেদ খাঁ, অপরেশ চ্যাটার্জি, অপরেশ ও বাঁশরী লাহিড়ী। এসব অনুষ্ঠানে আমি ছিলাম দর্শক ও শ্রোতা। এইসব অনুষ্ঠানের সংগৃহীত অর্থ আজাদ হিন্দ ফৌজের অসুস্থ…

আমার জীবনকথা ভাগ-৮

হাওড়াবাসীর নানা রঙের দিনগুলি ভাগ-৩ রোটারিয়ান স্বপন কুমার মুখোপাধ্যায় ১৯৪৮ সালে আমার উপনয়নের পরে ন’ বোন ঝরনা মাত্র নয় বছর বয়সে বালির বাড়িতে নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে পরলোকে গমন করে । ১৯৪৮ সালে হাওড়া ময়দানে এক বিশাল জনসভায় প্রথম পণ্ডিত জহরলাল নেহেরু ও ডক্টর রামমনোহর লোহিয়াকে দেখি । যথাসম্ভব ওই বছরেই হাওড়া ময়দানে নেতাজির আজাদ হিন্দ বাহিনীর কর্নেল শাহনওয়াজ খানকে নাগরিক সম্বর্ধনা দেওয়া হয় । পরিবর্তীকালে সালটা ঠিক মনে নেই, স্বাধীন ভারতে পশ্চিম বাংলার প্রথম রাজ্যপাল ছিলেন মাননীয় রাজাগোপালাচারি । উনি একবার হাওড়া গার্লস স্কুলের পুরস্কার বিতরণী সভায় প্রধান অতিথি…