উৎসবের পরিবেশ বজায় রাখতে নতুন কর্মসংস্কৃতি উৎসবের পরিবেশ এই রাজ্যে

রাজীব মুখার্জী, প্রাণিসম্পদ ভবন, সল্টলেকঃ পরিবেশ দপ্তরের ভার প্রাপ্ত মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর নতুন নির্দেশ অনুযায়ী আগামী দুর্গাপুজো পর্যন্ত পরিবেশ দফতর আর রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের সব দফতর গুলি খোলা থাকবে। কর্ম সংস্কৃতি ফেরানোর এই নির্দেশ বাম আমলের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের “ডু-ইট-নাও” কে মনে করাচ্ছে দুই মন্ত্রকের সাধারণ কর্মচারিদের। মন্ত্রক সূত্রের খবর, নাগরিক পরিষেবার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই নিৰ্দেশ নিয়ে কর্মীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে। পুজোর সময় মূলত শব্দ, জঞ্জাল ও অন্যান্য বিষয় সংক্রান্ত দূষণের মোকাবিলা কীভাবে করা হবে তাই নিয়ে সম্প্রতি তিনি তার নিজস্ব…

এক অন্য সংস্কৃতির অনন্য উৎসব

  রাজীব মুখার্জী, জাগাছা, জি. আই. পি. কলোনী, হাওড়াঃ “ডা তালাং ডাকা তালাং, ঝুমুর বায়হাদ রিন্ হাকু তালাং, আধান দলাং রাসে কো আ, আধান দলাং টাসে কো আ, নাসে নাসে দলাং জোজো আকো, জিল কুটি কুটি সদোম, সিবিল গে ন্যদম ন্যদম, সিডুপ আতে জম গে রাসে সদোম” এই শব্দ আর মাদলের সুর কানে পৌঁছলেই অন্তরমন দুলে ওঠে। মাদলের সুরের প্রতিটা ছন্দে পা অলক্ষ্যেই তাল মেলাতে শুরু করে। আর মনের অন্তরস্থল শাল ও পিয়াল আর পলাশের তাজা ঘ্রানে সুবাসিত হয়ে যায়। ২১শে সেপ্টেম্বর, দুপুর ৩টে নাগাদ হাওড়া জগাছার জি. আই পি. কলোনির পাস দিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ কানে…

উত্তরের পর এবার দক্ষিণে, আবারও অমানবিকতার কি বিচিত্র রুপ বৌমার হাতে শাশুড়ি খুন!

  অমিয় দে, দক্ষিণ ২৪ পরগনাঃ উত্তর ২৪ পরগণার বারাকপুরের কালিয়ানিবাস এলাকায়, ঘরে তালা ঝুলিয়ে মাকে বারান্দায় ফেলে রেখে বেড়াতে চলে গিয়েছিলেন ছেলে ও তার সস্ত্রী। গত বৃহস্পতিবারের এই ঘটনা ঘিরে কয়েকদিন ধরে সারা রাজ‍্য জুড়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। আজ আবার তার পুনরাবৃত্তি ঘটলো দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমা ব্লকে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দূর্বা চটি গ্রাম পঞ্চায়েতের পশ্চিম সুরেন্দ্রনগর এলাকায় মৃতা সরজনি দাসের ৩ ছেলে ও দুই মেয়ে। স্বামী অনেক দিন আগে গত হয়েছে। ছোট ছেলে শক্তিপদ দাসের কাছেই থাকতো মৃতা বৃদ্ধা। ছোটছেলের স্ত্রী ষুভাশীনি দাস শাশুড়ির ওপর দিনের পর…

অজানার ভিন্ন মহরম

  রাজীব মুখার্জী, হাওড়া : ভারতে এই মুহূর্তে যখন হিন্দু রাষ্ট্র, রামের জন্ম ভিটেতে মন্দির তৈরি ও গো মূত্রের উপযোগিতা নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের তৈরি করা বিভিন্ন দ্বন্দ নিয়ে গোটা দেশ তোলপাড় হচ্ছে, তার মধ্যেই একদল হিন্দু তৈরি করে যাচ্ছে এক অনন্য সুন্দর ঐতিহ্য বহনকারী নজির যা এই দেশ তথা গোটা বিশ্বের বিবাদমান হিন্দু ও মুসলিম উভয় গোষ্ঠীর কাছেই শিক্ষণীয়, এই ঘটনা গোটা দুনিয়ার সামনে মহরমের ঐতিহ্যকে ও ইতিহাসকে নতুন করে চেনাতে সাহায্য করবে। আমরা এতো কাল ধরে জেনে এসেছি মহরম পালন শুধু মাত্র মুসলমানেরাই করেন ও ওই দিনে তারা তাজিয়া বার…

রাস্তা সারানোর দাবীতে অবরোধ বাগদায়

  জয় চক্রবর্তী, বাগদাঃ দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার কাজ হচ্ছে না, অনেকদিন ধরেই বারংবার বলার পরও কেউ তাদের কথায় কর্ণপাত করে নি এমনটাই অভিযোগ। তাই রাস্তা সারাইয়ের দাবিতে এবার বনগাঁ দত্তপুলিয়া রোডে সিন্দ্রাণী গ্রাম পঞ্চায়েতের আকন্দ তলায় রাস্তা অবরোধ শুরু করে স্থানীয় এলাকার লোকেরা। ২১শে সেপ্টেম্বর দুপুর তিনটে নাগাদ অবরোধ শুরু হয় চলে প্রায় ১ ঘন্টা ৷ ঘন্টা খানেক অবরোধ চলার পর টনক নড়ে প্রশাসনের। পরে প্রশাসনিক আশ্বাসে অবরোধ উঠে যায়। স্থানীয় সূত্রে জানাযায় বাগদা ব্লকের সিন্দ্রানী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার অকন্দতলা থেকে নদীর ধার পর্যন্ত প্রায় চার কিলোমিটার প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক…

২০ বছর পর আবার তিনি ফিরলেন প্রদেশে কংগ্রেসের শীর্ষ আসনে

  অরিন্দম রায় চৌধুরী ও অমিয় দে, কলকাতাঃ লোকসভা ভোটের আগে সেই সোমেন মিত্রের উপরই ভরসা রাখলেন সভাপতি রাহুল গান্ধী। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদে অধীর চৌধুরীর স্থলাভিষিক্ত হলেন সোমেন মিত্র। মাঝে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে চলে গিয়েছিলেন। তারপর তৃণমূলের সংসর্গ ত্যাগ করার পর আবার কংগ্রেসে ফিরে আসেন। সেই ১৯৯৮ কংগ্রেস ছেড়ে নতুন দল গড়েছেন বাংলার অগ্নিকন্যা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ভাঙনেই কংগ্রেসের পতনের শুরু হয়েছিল রাজ্যে। একের পর এক নেতারা যোগ দেন মমতার নব্য গঠিত তৃণমূল কংগ্রেস দলে আর তারপর ক্রমশই কংগ্রেস খাদের কিনারায় চলে গিয়েছে। আর দলকে সম্মিলিত রাখতে ব্যর্থ হয়ে…

অমানবিক আচরণ শিক্ষিত সমাজের শিক্ষিত শিক্ষক দম্পতির!

রাজীব মুখার্জী, বারাকপুরঃ ঘরে তালা ঝুলিয়ে মাকে বারান্দায় ফেলে রেখে বেড়াতে চলে গিয়েছে সস্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে। গত বৃহস্পতিবারের এই ঘটনা ঘিরে কয়েকদিন ধরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে বারাকপুরের কালিয়ানিবাস এলাকায়। কথায় আছে ভাগের মা গঙ্গা পায় না। ৩ ছেলের মা ভাগীরথী দেবীর অবস্থাও এইটাই। রায়মনি ভট্টাচার্যের ৩ ছেলে। ছোট ছেলে রতন বেশি আদরের। তাই তাঁকেই সর্বস্ব দিয়ে দেন মা। সেই রাগে দুই ছেলে ফিরেও তাকায় না বৃদ্ধা মায়ের দিকে। মাকে ঘরের থেকে বাইরে বের করে আসাম ঘুরতে গেলেন ছেলে ও বৌমা। বিষয়টি প্রকাশ্যে হয়তো আসতো না যদি টানা দুদিন না খেয়ে,…

আদালতের নির্দেশকে পাত্তা না দিয়ে মিনাখাঁয় চললো তৃণমূলের পঞ্চায়েত র্বোড গঠন উৎসব

শান্তনু বিশ্বাস, মিনাখাঁঃ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ১৪৪নং ধারা না মেনে মিনাখাঁয় পঞ্চায়েত র্বোড গঠন করল তৃণমূল। নিরব দর্শকদের ভুমিকায় পুলিশ প্রাশাসন। কোন গণ্ডগোল বা অপ্রিতিকর ঘটনা এড়াতে আদালত পঞ্চায়েত বোর্ড গঠনের দিন, পঞ্চায়েতের অফিসে ১৪৪নং ধারা জারি রাখার নির্দেশ দিয়ে ছিলো। আর সেই আদালতের নির্দেশ অমান্য করেই, মিনাখাঁ গ্রাম পঞ্চায়েতের অফিসের সামনেই চলল উদাম নৃত্য। শুধু উদাম নৃত্য নয়, চলে পঞ্চায়েতের অফিসের সামনে পুলিশের সামনেই উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ডিজে বক্স চালিয়ে আবির খেলা, নৃত্য আর বাজী ফাটানো। আর এই সব কিছুই দাড়িয়ে দেখলেন পুলিশ আধিকারিকরা। ওসি, আই সি, এস ডি পি…

দুই বাংলার সম্প্রীতি আরও দৃঢ় করবার লক্ষ্যে বেঙ্গল ভেটেরান্স ফুটবল ক্লাব

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বাংলাদেশের মানুষদের সাথে সম্পর্ক আরও দৃঢ় করবার জন্য বাঁকুড়া, বীরভূম, কাঁচরাপাড়া সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে ১৮ জনের বয়স্ক ফুটবল দল বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে ১৯শে সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ গেল প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণ করতে৷ ২০শে সেপ্টেম্বর নড়াইল জেলায়, ২১শে সেপ্টেম্বর মাগুরা এবং ২৩শে সেপ্টেম্বরে ঝিনাইদহে এই ম্যাচ হবে। মোট ৩ টি প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ৷ ২৪শে সেপ্টেম্বর দেশে ফিরবেন ভারতীয় ভেটেরান্স ফুটবল খেলোয়াড়রা। ভেটারান্স ফুটবল দলের অধিনায়ক পার্থ রায় বলেন, ৫০ বছরের উর্ধ খেলোয়াড়ও আমাদের দলে রয়েছে। দুই দেশের সম্প্রীতি ও মৈত্রী আরও দৃঢ় করবার জন্য…

ছয়ঘরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূলের বোর্ড গঠন

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ বনগাঁ মহকুমার ছয়ঘরিয়া পঞ্চায়েতের গ্রামসভার ১৮টি আসনের মধ্যে ১৭ টিতে তৃণমূল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ করে৷ কিন্তু ১ টিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। আদালতের নির্দেশে দীর্ঘদিন বোর্ড গঠন স্থগিত থাকার পর অবশেষে ১৯শে সেপ্টেম্বর ছয়ঘরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠিত হলো৷ প্রধান হলেন প্রসেনজিৎ ঘোষ৷ তিনি শহর তৃণমূল কংগ্রেসের যুব সভাপতি। প্রসেনজিৎ বাবু বলেন, পেট্রাপোল বন্দর রয়েছে এই ছয়ঘরিয়া এলাকায়৷ এই বন্দরে ব্যবসা বাণিজ্যে শ্রীবৃদ্ধি এবং মা-মাটি-মানুষ সরকার মমতা ব্যানার্জীর উন্নয়নের ধারাকে তিনি এগিয়ে নিয়ে যাবেন।