খোদার উপরে খোদকারি করে হয়েছি ঈশ্বর

  রাজীব মুখার্জী, রহড়া, উত্তর ২৪ পরগনাঃ “ঈশ্বরের তৈরি এই নশ্বর শরীর পঞ্চভূতে বিলীন হয়ে যায়। এটাই এই জগতের সত্যি”। এই কথাটি আমাদের দেশের সমস্ত অধ্যাত্বিকতার অন্তর সার। মানুষও ঈশ্বর হওয়ার বাসনা রাখে। বিগত ১০,০০০ বছরের মানব প্রযুক্তির উত্তরণ আজকে তাকে সেই স্থানে এনে রেখেছে যে তার তৈরি বস্তু এখন পঞ্চভূতে বিলীন হচ্ছে না। ভাবছেন কি সেটা? আর কিছুই নয়, এটা মানুষের তৈরি প্লাস্টিক দ্রব্য। এই বস্তুটি অবলীলাক্রমে এক হাজার অব্দি অবিকৃত অবস্থায় থেকে যায় প্রকৃতিতে, যা একটি অশনিসংকেত আমাদের বিশ্বের কাছে। এই সমস্যার মোকাবিলাতে গোটা পৃথিবীতে পরিবেশবিদ থেকে শুরু করে…

মানব জাতির ভবিষ্যৎ জানার উপায় “চাওস থিওরি”

রাজীব মুখার্জী, কলকাতাঃ মানব সভ্যতার জন্ম লগ্ন থেকেই মানুষ প্রকৃতির দ্বারা লালিত পালিত। প্রকৃতির শক্তি গুলোকে অজ্ঞানতার কারণে ভয় পেয়ে সেগুলোকে দেব, দেবীর জায়গা দিয়েছিলো। আজও গোটা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বহু লোকায়িত দেব এবং দেবীর উৎপত্তি সেই ধারণার থেকেই। মানুষ প্রকৃতিকে মায়ের স্থান দিয়েছে। নারী শক্তির উপমা দিতে মানব সভ্যতা প্রকৃতির এই শক্তিকেই বেছে নিয়েছে। তবু এর কতটুকুই বা আমরা বুঝতে পেরেছি বা চিনতে পেরেছি? এখানে প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে নানা রকমের ঘটনা। এসব ঘটনা ঘটার ক্ষেত্রে প্রকৃতি কখনোই মানুষের তৈরি কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা করে না। বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ, যেগুলোকে…

নাসার নয়া ঘোষণা, রাতের আকাশে দাপাচ্ছে গডজিলা আর হাল্ক

  ওয়েব ডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ  রাতের আকাশে সপ্তর্ষি মণ্ডল বা কালপুরুষ নিশ্চয়ই দেখেছেন। এইসব নক্ষত্রমণ্ডলীর পাশে এবার জায়গা করে নিচ্ছে দুই কল্পিত চরিত্র। নাসার পক্ষ থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে সম্প্রতি। গডজিলা এবং হাল্ক। দুনিয়া জুড়ে অত্যন্ত বিখ্যাত এই দুই চরিত্রের আদল মিলেছে মহাকাশে। তবে এক্ষেত্রে মহাকাশে বিভিন্ন নক্ষত্রকে জুড়ে জুড়ে নয়, ফার্মি টেলিস্কোপ থেকে দেখা গামা রশ্মির উপরে নির্ভর করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নাসার বক্তব্য, এই গামা রশ্মিই হল আলোর সর্বাপেক্ষা শক্তিশালী ফর্ম। তাকে ধরেই ২১টি নতুন নক্ষত্র মণ্ডলীর খোঁজ মিলেছে। ২০০৮ সাল থেকে ফার্মির লার্জ এরিয়া টেলিস্কোপ প্রতিদিন…

ভোররাতে মহাকাশ পাড়ি দিল ইসরো-র অষ্টম নেভিগেশন স্যাটেলাইট

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গলটুডেঃ অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে ভোর ৪টে ০৪ নাগাদ রওনা দেয় এই যান। যারপর স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছেন ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশনের বিজ্ঞানীরা। জানা গিয়েছে, আইআরএনএসএস১-এ -এর অ্যাটোমিকক্লকটি ঠিকভাবে কাজ করছিল না। ফলে আইআরএনএসএস১-এ নিজের লক্ষ্য থেকে দূরে চলে যাচ্ছিল। ইওরোপ থেকে আনা ওই অ্যাটোমিক ক্লকের ব্যর্থতা নিয়ে বেশ চিন্তিত ছিল ইসরো। ফলে লোকেশন ডেটা পেতে সমস্যা হচ্ছিল স্যাটেলাইটের। যা রীতিমত হতাশ করে ইসরোর বিজ্ঞানীদের। আইআরএনএসএস১-এ সঠিকভাবে কাজ না করার ব্যার্থতাকে মুছে দিতেই এদিন কাকভোরে ইসরো উৎক্ষেপণ করল অষ্টম নেভিগেশন স্যাটেলাইট আইআরএনএসএস১আই। এই স্যটেলাইটকে নিয়ে এদিন মাকাশ পাড়ি দেয় পিএসএলভি…

বিসমিল্লার জন্মদিনে ডুডলের মাধ্যেমে গুগলের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডে: ২১ শে মার্চ বিসমিল্লা খাঁ-র ১০২তম জন্মদিন। আর তাই গুগলের হোম পেইজে ডুডলের মাধ্যমে তাকে শ্রদ্ধা জানান গুগল। যেখানে দেখা যাচ্ছে সানাইবাদনরত বিসমিল্লাকে। সানাইয়ের সুরকে রসির আকারে দেখানো হয়েছে সেখানে। সেই রসিই বেঁধে রখেছে গুগলের অক্ষর গুলিকে। এরপর পিছন থেকে শিল্পীর উপর এসে পড়েছে আলো। সেই আলো-আঁধারিতে স্পষ্ট বিসমিল্লার পিছনে মুঘল শিল্পকলা। উল্লেখ্য ১৯১৬ সালের ২১ মাস বিহারের বক্সার জেলায় জন্মেছিলেন বিসমিল্লা খাঁ। ২০০৬ সালে ৯০ বছর বয়সে প্রয়ান হয় তাঁর। বিহারে জন্ম হলেও তাঁর তালিম ও পেশাদারি জীবন কাটে বানারসিতে। মার্গসঙ্গীতের ধারায় সানাইবাদন জনপ্রিয় হয় তাঁর…

প্রয়াত হলেন আধুনিক বিজ্ঞানের বিখ্যাত বিজ্ঞানী স্টিভেন হকিং

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডে: দীর্ঘদিন যাবত মোটর নিউরন ডিজিজের সাথে লড়াই করে অবশেষে ১৪ই মার্চ ভোররাতে ইংল্যান্ডের কেমব্রিজে, নিজের বাড়িতেই শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন স্টিফেন হকিং। বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানিত এবং সুপরিচিত একজন বিজ্ঞানী স্টিভেন হকিং ৭৬ বছর বয়স পর্যন্ত লড়ে গেলেন তিনি। শুধু লড়াই নয়, কাজ করে গেলেন আমৃত্যু। ১৯৪২ সালের ৮ জানুয়ারি ইংল্যান্ডের অক্সফোর্ডে জন্ম হয় আধুনিক বিজ্ঞানের এই অন্যতম সেলিব্রিটির। গ্যালিলিওর জন্মের ঠিক ৩০০ বছর পরে। গরিব পরিবারের হলেও হকিংয়ের বাবা-মা দুজনেই পড়তেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে। বাবা ছিলেন মেডিসিনের ছাত্র। মা পড়তেন রাজনীতি, অর্থনীতি এবং দর্শন। হকিংরা ছিলেন চার ভাই-বোন।…

হলিউড ছবির থেকে কম খরচে দ্বিতীয় চন্দ্রাভিযান ইসরোর

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডে: আর মাত্র দু-এক মাস পর চাঁদের উদ্দেশ্যে দ্বিতীয় চন্দ্রযান উত্ক্ষেপণ করবে ইসরো। মূলত এই অভিযানে চাঁদের কক্ষপথে ঘোরার জন্য থাকবে একটি অরবিটার মহাকাশযান। আর তার সঙ্গে থাকবে চাঁদের মাটিতে নামার জন্য একটি ‘ল্যান্ডার’ও চাঁদের মাটিতে নেমে ঘোরাফেরার জন্য থাকবে একটি ‘রোভার’। ‘জিএসএলভি-এমকে-টু’ রকেটে চাপিয়ে ‘চন্দ্রযান-২’ কে পাঠানো হবে চাঁদের দেশে। আর এই যানটির পৃথিবী থেকে চাঁদে পৌঁছতে সময় লাগবে প্রায় ১ মাস। এই নিয়ে দ্বিতীয় বার ইতিহাস ছোঁয়ার জন্য ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর খরচ হবে কম-বেশি ৮০০ কোটি টাকা! যা হলিউডের বিজ্ঞানভিত্তিক ছবি ‘ইন্টারস্টেলর’ তৈরির খরচের…

বছরের শুরুতেই পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসতে চলেছে গ্রহানু

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গলটুডেঃ নতুন বছরের শুরুতেই ফের পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসতে চলেছে গ্রহানু। মূলত বিগত বছরে সেপ্টেম্বর মাসেও একটি গ্রহানু পৃথিবীর দিকে ধেয়ে এসেছিল তবে তা পৃথিবীকে ধ্বংস করতে পারেনি। বরং তা পৃথিবীর গা ঘেসে বেড়িয়ে গিয়েছিল। আর ঠিক একইরকম একটি প্রকান্ড গ্রহানু ফের আমাদের দিকে ধেয়ে আসছে বলে জানান নাসা বিজ্ঞানীরা। তবে এর দরুন ভয়ের কোন কারন নেই । কারন এবারের মতো রক্ষা পাচ্ছে পৃথিবী। প্রায় কান ঘেঁষে বেড়িয়ে যাবে এই গ্রহানুটি। নাসা বিজ্ঞানীদের সুত্রে খবর, পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসা গ্রহানুটি ১৫ থেকে ৩০ মিটার দৈর্ঘ্যের। বিজ্ঞানীরা যার নাম রেখেছেন…

৬৯-তম প্রজাতন্ত্র দিবসে গুগলের ডুডলের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডে: অন্যান্য বিশেষ দিনের ন্যায়২৬ শে জানুয়ারি ২০১৮ ডুডলের মাধ্যমে ভারতের ৬৯-তম প্রজাতন্ত্র দিবসে শ্রদ্ধা জানাল গুগল। মূলত ১৯৪৯ সালের ২৬ নভেম্বর ভারতের সংবিধান পরিষদে সংবিধান গৃহীত হলেও, ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারি ভারতের সংবিধান কার্যকর হয়। সেদিন থেকেই এই দিনটি প্রজাতন্ত্র দিবস হিসেবে পালিত হয়। এবারের প্রজাতন্ত্র দিবসও দেশের সর্বত্র যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে পালিত হচ্ছে। প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন। পদ্ম পুরস্কারও প্রদান করা হয়েছে। সঙ্গীত জগতে বিশেষ অবদানের জন্য পদ্মবিভূষণ খেতাব দেওয়া হয়েছে ইল্লাইয়ারাজাকে। মহেন্দ্র সিংহ ধোনি, পঙ্কজ আডবাণী পদ্মভূষণে ভূষিত হয়েছেন।…

দেড়শ বছর পরে একই আকাশে দেখতে পাওয়া যাবে চাঁদের তিন রূপ!

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডে: চলতি মাসের ৩১ তারিখ ভারতের আকাশে চাঁদের তিন রূপ দেখা যাবে বলে জানান কেরল সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি মিউজিয়াম। পাশাপাশি (কেএসটিএম)-এর প্রিয়দর্শিনী প্ল্যানেটোরিয়াম-এর তরফ থেকে সাধারণ মানুষের জন্য টেলিস্কোপের বন্দোবস্তও করা হচ্ছে। মূলত ‘সুপার মুন’, ‘ব্লু মুন’ বা ‘একলিপ্স’ এই ৩ টি শব্দ প্রায় সকলেরই চেনা। কিন্তু একইসঙ্গে, একইদিনে চাঁদের এত রূপ বেশ চমকপ্রদ একটি ব্যাপার। এমনই এক অভিনব ঘটনার জন্য তৈরি হচ্ছে ভারতের তিরুঅনন্তপুরম। উল্লেখ্য ৩১ শে জানুয়ারি পর পর ঘটবে কয়েকটি ঘটনা। অর্থাৎ উক্তদিন বিকেল ৪:২১ থেকে সন্ধে ৭:৩৭ পর্যন্ত— আংশিক চন্দ্রগ্রহণ। পূর্ণচন্দ্র আবারও দেখা যাবে…