ঝাড়গ্রাম এলাকার গ্রামের পড়ুয়াদের ইংরাজীর ভীতি কাটাতে উদ্যোগ নিল প্রশাসন

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রাম:

প্রাথমিকে বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজি বিষয়ের উপর ভীতি কাটাতে ইংরেজী ভাষাকে আরও সহজ সরল ভাবে পৌছে দিতে উদ্যোগ নিয়েছেন ঝাড়গ্রাম জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের চেয়ারম্যান। প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলিতে তৃতীয় এবং চতুর্থ শ্রেনীর পাঠ্য পুস্তকের ইংরেজি পড়ুয়াদের কাছে যথেষ্ট কঠিন মনে হয়। তাই ইংরেজি বিষয়ের উপর ছাত্রছাত্রীদের মনে একটা ভীতু সৃষ্টি হয়। অনেক ক্ষেত্রে শিক্ষকেরাও সহজ, সাবলিলভাবে পাঠ্য পুস্তকের ইংরেজী পড়ুয়াদের কাছে বোঝাতে সমস্যায় পড়েন।

বিশেষতঃ গ্রামীন এলাকার প্রাথমিকের পড়ুয়ারা বেশির ভাগ ক্ষেত্রই বাড়িতে কোন সাহয্য পায় না। তাদের কাছে এক মাত্র প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ভরসা। অনেকের মতে গ্রামের এখনো অনেক পরিবারের পড়ুয়ারা প্রথম প্রজন্ম শিক্ষার্থী। ফলে তারা এক মাত্র সাহায্য পায় বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছ থেকে। আর তাই এবার শিক্ষকরা যাতে প্রশিক্ষন নিয়ে ইংরেজীকে সহজ, সুন্দরভাবে পড়ুয়াদের কাছে তুলে ধরতে পারে তার জন্য উদ্যোগ নিয়েছেন ঝাড়গ্রাম জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ সেনগুপ্ত। তিনি উদ্যোগ নিয়েছেন ঝাড়গ্রাম জেলার প্রতিটি সার্কেলের অন্তর্গত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুই জন করে শিক্ষকদের নিয়ে ৭ দিনের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করবেন। আর এই প্রশিক্ষনে বিভিন্ন হাই স্কুলের ইংরেজীর শিক্ষকরা এই প্রশিক্ষন দেবেন। আর প্রশিক্ষনে উপস্থিত থাকবেন স্বয়ং চেয়ারম্যান নিজে। ঝাড়গ্রাম জেলা প্রাথমিক সংসদের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ সেনগুপ্ত নিজে প্রগতি সংঙ্ঘ উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং ইরেজি তাঁর বিষয়। তাই তিনি নিজে উপস্থিত থেকে কর্মশালাটি পরিচালনা করবেন বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য ঝাড়গ্রাম জেলায় মোট প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে ১২৯১টি। জেলার মোট ১৮টি চক্রের অধীনে রয়েছে এই বিদ্যালয় গুলি। প্রতিটি চক্র থেকে দুজন করে শিক্ষকদের মোট সাতদিনের প্রশিক্ষন দেওয়া হবে। প্রশিক্ষন প্রাপ্ত শিক্ষকরা হবেন কি রিসোর্স পার্সেন। এই সব প্রশিক্ষন প্রাপ্ত শিক্ষকেরা আবার অন্যান্য শিক্ষকদের শেখাবেন কিভাবে সহজে ইংরেজী পড়ুয়াদের কাছে তুলে ধরা যায়। খুব শিঘ্রই এই প্রশিক্ষন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন সংসদ চেয়ারম্যান। এর পাশাপাশি প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলিতে যাতে পড়ুয়াদের সাহিত্য পাঠ নিয়মিত করা যায় তার জন্যও সংসদ চেয়ারম্যান নির্দেশ দিয়েছেন। সাহিত্য পাঠের মাধ্যমে যাতে শিশু বয়স থেকেই পড়ুয়ারা গ্রন্থাগার মুখি হতে পারে তার জন্যই এই ব্যবস্থা বলে জানা গিয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদ সূত্রে।

প্রসঙ্গগত ৪ ঠা জানুয়ারি ঝাড়গ্রাম জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ার থেকে বিশ্বজিৎ বাবু জেলার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষিকাদের সঙ্গে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে মতামত গ্রহন, মিড ডে মিল পরিদর্শন সহ একাধিক কর্মসূচি গ্রহন করে চলেছেন।

ঝাড়গ্রাম জেলার প্রথম প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদ চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ বাবু বলেন, “ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গুলিতে বিশেষত তৃতীয় এবং চতুর্থ শ্রেনীর ইংরেজী পাঠ্য পুস্তক পড়ুয়াদের বুঝতে এবং শিক্ষকদের বোঝাতে সমস্যা হচ্ছে। শিক্ষকরাই দাবি করেছিলেন প্রশিক্ষনের। এর মাধ্যমে সহজ, সরলভাবে যাতে ইংরেজী ভাষাটি পড়ুয়াদের কাছে তুলে ধরা যায়। তাই জন্য আমরা শিক্ষকদের নিয়ে ৭ দিনের প্রশিক্ষন দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি নিজে উপস্থিত থাকব। আশা করি এই প্রশিক্ষনের পর শিক্ষকেরা সমর্থ হবেন সহজভাবে পড়ুয়াদের সহজভাবে ইংরেজী বোঝাতে। এর সাথে বিদ্যালয় গুলিতে যাতে সাহিত্য পাঠ চালু করা যায় তার জন্যও বলেছি।”

সম্পর্কিত সংবাদ