২৯ শে মে বাংলাদেশ থেকে দেখা যাবে ফ্লাওয়ার মুন

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বেঙ্গলটুডে প্রতিনিধি, ঢাকা:

মে মাসের পূর্ণিমাকে বলা হয় ‘ফ্লাওয়ার মুন’। এমনকি অনেকে একে হান্টার্স মুন, মিল্ক মুন, ফ্রস্ট মুনও বলে থাকেন। ২৯ শে মে দেখা যাবে এই মহাজাগতিক ঘটনা। এই সময়ের চাঁদ এতটাই উজ্জ্বল আর মোহময়ী হয় যে, বিশ্বের সমস্ত প্রান্তের মানুষই চাঁদের রূপে মুগ্ধ হয়ে পড়েন। জানা যায়, ২৯ শে মে সকাল ৭টা ১৯ মিনিট নাগাদ পড়তে চলেছে পূর্ণিমা। মে মাসের এই পূর্ণিমার নামকরণ করা হয়েছে ‘ফ্লাওয়ার মুন’ হিসাবে।

ইউরোপ ও আমেরিকার একাংশ চাঁদের বিভিন্ন নাম নিয়ে বহুবার নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছে ভাষাগতভাবে। নামকরণের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলেছে স্থানীয় খাদ্য ও আবহাওয়া। সবমিলিয়ে ভাষাগত ইতিহাসের বিভিন্ন অধ্যায় পূর্ণিমা বিভিন্ন নামে খ্যাত হয়েছে।

কেন ফ্লাওয়ার মুন নাম? : সময়ের হিসাবে পশ্চিমা দেশগুলির বিভিন্ন জায়গায় মে মাসের পূর্ণিমায় খুব সুন্দর জংলি ফুল ফোটে। পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধের এই মোহময় দৃশ্য চাঁদনী রাতে দেখতে বেশ সুন্দর লাগে। আর সেই থেকেই এই পূর্ণিমা নাম পেয়েছে ফ্লাওয়ার মুনের।

পূর্ণিমা সম্পর্কে কিছু তথ্য : পূর্ণিমা তখনই ঘটে যখন চাঁদ পৃথিবীর যে পাশে সূর্য অবস্থিত তার ঠিক উল্টো পাশে অবস্থান করে। পৃথিবী থেকে দৃশ্যমান চাঁদ এ সময় সূর্য দ্বারা পূর্ণভাবে আলোকিত হয়; যার ফলে একে একটি পূর্ণ গোলাকার চাকতি রূপে দেখা যায়। এ বছর ২৯ শে মে পূর্ণিমার আভাস ২৮ মে -র রাত থেকেই পাওয়া যাবে।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment