বাংলাদেশে অবৈধ মোবাইল সেট ধরতে গিয়ে শুল্ক গোয়েন্দারা বিপাকে

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বেঙ্গলটুডে প্রতিনিধি, ঢাকা:

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে অবৈধ মোবাইল সেট জব্দ করতে গিয়ে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। ১৯ মে শনিবার দুপুরে এই অভিযান যাওয়ার পর শুল্ক গোয়েন্দাদের গাড়ি আটকে বিক্ষোভ শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কাজী জিয়াউদ্দিন সহ কর্মকর্তারাও আটকা পড়েন। বিক্ষুব্ধ ব্যবসায়ীরা বিপণি বিতানটির সামনের পান্থপথ থেকে কারওরান বাজারমুখী রাস্তা দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় আটকে রাখেন। দুপুর ১২টায় বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে অভিযানে নামেন গুল্ক গোয়েন্দারা। ব্যবসায়ীরা বাধা দিলে র‌্যাব পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা চালায়। এসময় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে র‌্যাব কর্মকর্তাদেরও উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। শুল্ক কর্মকর্তারা বিপণি বিতানের পেছনের দিক থেকে বেরিয়ে যেতে চাইলে ব্যবসায়ীরা তাদের আটকে দেয়। দুপুর ১টার পর রাস্তা আটকে দেন ব্যবসায়ীরা। তবে ৩টার দিকে তারা রাস্তা ছাড়েন।

আরএম ট্রেডিং ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়ী মোফাজ্জেল হোসেন মামুন বলেন, বিনা নোটিসে শুল্ক গোয়েন্দারা আমাদের মোবাইল মার্কেটে অভিযান চালিয়ে কোটি টাকার মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে গিয়েছে। তারা স্থানীয় পুলিশকে কিছু না জানিয়েই এ অভিযান চালায়। তাই বাধ্য হয়ে ব্যবসায়ীরা তাদের পথ রোধ করে মোবাইলগুলো ফেরত চাইছে। ঊষা টেলিকমের মালিক উজ্জ্বল হোসেন বলেন, ৫টা দোকান থেকে ২ কোটি টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। তারা আইফোন নিয়ে গেছে। এই সময় অন্য মোবাইলের বিষয় জানতেও চায়নি।

এছাড়া বিক্ষোভরত এক ব্যবসায়ী মো. নাজিমউদ্দিন বলেন, যদি অন্যায়ভাবে মোবাইলগুলো বাজারে আনা হয় তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। তবে প্রতি ঈদের আগেই শুল্ক গোয়েন্দারা এখানে এসে ব্যবসায়ীদের হয়রানি করে। তারা মোবাইল নিয়ে যায় এবং সেগুলো ফেরত দেয় না বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অবরুদ্ধ শুল্ক কর্মকর্তা জিয়াউদ্দিন বলেন, নিয়ম মেনে বসুন্ধরা মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হলে তাদেরকে বলা হয়েছে, প্রয়োজনীয় কাগজ পরীক্ষা করে মোবাইল ফেরত দেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সম্পর্কিত সংবাদ