বিশ্ব ডেঙ্গু দিবসে অভিনব উদ্যোগ

Share Bengal Today's News
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রাম:

ডেঙ্গু আক্রান্তদের প্ল্যেটলেট দেওয়ার উদ্যোগ নেবে ঝাড়গ্রাম জেলা হাসপাতাল। গত বছর পর্যন্ত ঝাড়গ্রাম জেলা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্তদের প্ল্যেটলেট প্রয়োজন হলেও তাদেরকে প্ল্যেটলেট দেওয়ার।মতো ব্যবস্থা ছিলনা। এবার সেই উদ্যোগ নিয়েছে ঝাড়গ্রাম জেলা স্বাস্থ্য দফতর। এবার যদি কোনও ডেঙ্গু রোগীর প্ল্যেটলেট প্রয়োজন হয় তাঁকে বাঁকুড়া জেলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে প্ল্যেটলেট আনার উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানান ঝাড়গ্রাম জেলা স্বাস্থ্য দফতরের মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক অশ্বিনী কুমার মাঝি।

১৬ই মে জাতীয় ডেঙ্গু দিবস উপলক্ষে ঝাড়গ্রাম জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের নেতৃত্বে একটি বর্নাঢ্য টোট র‌্যালি গোটা ঝাড়গ্রাম শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে পরিক্রমা করে। ঝাড়গ্রাম জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের অফিসের সামনে থেকে ষলোটি টোট নিয়ে শুরু হয়েছিল ডেঙ্গু রোগের বিরুদ্ধে সচেতনতা মূলক প্রচার র‌্যালি। টোট গুলিকে সচেতনতা মূলক ব্যানার, ফেস্টুন দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয়ে ছিল।র‌্যালির পুরভাগে ছিলেন মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক। তিনি মাইক নিয়ে ডেঙ্গু বিরোধী সচেতনতা মূলক বক্তব্য রাখেন।মাশারি ব্যবহার,জমা জল বাড়িতে না রাখা,জ্বর হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া,রক্ত পরীক্ষা সহ বিভিন্ন সচেতনতা মূলক বক্তব্য রাখেন মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক। এদিনের র‌্যালিতে ছিলেন পতঙ্গ বিষারদ সহ জেলা স্বাস্থ্য দফতরের প্রমুখ। টোট নিয়ে প্রচার র‌্যালিটি ঝাড়গ্রাম শহেরের এক, দুই, তিন, পাঁচ, ছয় ওয়ার্ড সহ বিভিন্ন জায়গা পরিক্রমা করে শেষ হয় মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের অফিসের সামনে।
উল্লখ্য গত বছর ঝাড়গ্রাম জেলায় অনেকেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেনিলেন।কিন্তু একটিও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। ঝাড়গ্রাম জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে গত বছর ঝাড়গ্রাম জেলায় তিপান্ন জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। এর মধ্যে প্রায় পনেরো জন ঝাড়খন্ড,ওড়িশ্যা,কলকাতা,হাওড়া থেকে ডেঙ্গু সংক্রমন নিয়ে অসুস্থ হয়ে ঝাড়গ্রাম জেলা হাসপাতালের ভর্তি হয়েছিলেন। কয়েক জন রেফার হয়েছিলেন। কিন্তু এক জনও ডেঙ্গুতে মারা যাননি।

জানা যায়, ঝাড়গ্রাম হাসপাতালে ডেঙ্গুর রক্ত পরীক্ষা হয় না। মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে কারানো হয়। স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকদের বক্তব্য ডেঙ্গু মূলত উপসর্গ দেখেই চিকিৎসা করা হয়। ডেঙ্গু ধরন কেমন তা জানতেই রাক্তের পরীক্ষা করানো হয়। তবে এবার ঝাড়গ্রাম জেলা সুপারস্পেশালিটা হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্তদের প্ল্যেটলেট দেবার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে প্ল্যেটলেট আনার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

এই বিষয়ে ঝাড়গ্রাম জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক অশ্বিনী কুমার মাঝি বলেন, “এবার ঝাড়গ্রাম জেলা সুপারস্পেশালিটা হাসপাতালে বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে প্ল্যেটলেট আনার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এটা ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসার ক্ষেত্র অনেকটাই প্রসারিত হবে। আমরা এদিন জাতীয় ডেঙ্গু দিবসে শহরবাসীকে সচেতন করার উদ্দেশ্য টোট নিয়ে একটি প্রচার র‌্যালি বার করে ছিলাম।মাইকিং এর মাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে সচেতনতার বিভিন্ন দিক গুলি।”

সম্পর্কিত সংবাদ