সাফারি পার্কে ৩ বছরের শিশুকে খুবলে খেল চিতা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ

উগান্ডার কুইন এলিজাবেথ ন্যাশনাল পার্কে ৩ বছরের শিশুকে একা পেয়ে ঝোপের মধ্যে টেনে নিয়ে যায় চিতাবাঘ। পরের দিন শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করেন বনকর্মীরা।

জানা যায়, শিশুর বাবা ওই পার্কের রেঞ্জার। পার্কের মধ্যে কর্মী আবাসনে পরিবার নিয়ে থাকেন। ৪ ঠা মে রাতে শিশুর দেখভালের দায়িত্বে ছিল বাড়ির বয়স্ক পরিচারিকার উপর। পরিচারিকা কিছুক্ষণের জন্য ঘরের বাইরে বেরিয়েছিলেন। সেই সময় শিশুটিও তাঁর পিছু পিছু বাইরে বেরিয়ে যায়। আর বাইরে ঝোপের মধ্যে ওঁত পেতে বসে ছিল চিতাবাঘ। শিশুকে একা পেয়ে তাকে টেনে নিয়ে জঙ্গলে চলে যায়। শিশুটি চিৎকার করলেও পরিচারিকা তাকে চিতাবাঘের কবল থেকে উদ্ধার করতে পারেননি।

পার্কের মুখপাত্র বশির হাঙ্গি বলেন, “বাচ্চাটি যে তাঁর পিছু পিছু বাড়ির বাইরে বেরিয়েছে, তা পরিচারিকা জানতেন না।” ঘটনার পরদিন সকালে আবাসন থেকে বেশ খানিকটা দূরে শিশুর খুবলে খাওয়া মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। পার্কের এক রেঞ্জার বলেন, “চিতাবাঘকে খোঁজার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তাকে ধরে অন্যত্র পাঠিয়ে দেওয়া হবে। কারণ একবার যখন যে মানুষের মাংসের স্বাদ পেয়ে গেছে, তখন আবার সে মানুষের উপর আক্রমণ করবে।”

প্রসঙ্গগত এই ঘটনার এক সপ্তাহ আগে সাউথ আফ্রিকায় ম্যারাকেলে একটি সিংহ তার মালিককে আক্রমণ করে। সিংহের আক্রমণে মাইক হজ নামে ওই ব্যক্তির থুতনি ভেঙে যায়। এরপর কোনওরকমে পালিয়ে বাঁচেন তিনি। পরে সিংহটিকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

সম্পর্কিত সংবাদ