জেলার একমাত্র উন্নয়নের কান্ডারি বিপ্লব মিত্র, নির্বাচনী প্রচারে এসে বললেন মদন মিত্র

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পল মৈত্র, দক্ষিন দিনাজপুরঃ

জেলার উন্নয়নের জাদুকর বিপ্লব মিত্র। । দক্ষিণ দিনাজপুরের নানান উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড উন্নয়নের এই কান্ডারি তথা লড়াকু নেতা বিপ্লব মিত্র মেজদা তা করে দেখাতে পেরেছেন। জেলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারে এসে বিপ্লব মিত্র সম্পর্কে কার্যত গর্বের সুরেই একথা বলেন প্রাক্তন পরিবহন ও ক্রীড়ামন্ত্রী মদন মিত্র। দক্ষিন দিনাজপুর জেলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারে এসে গঙ্গারামপুরের পৈতাদিঘী প্রাণসাগর সহ বিভিন্ন এলাকায় দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে বক্তব্য রাখেন। সর্বক্ষেত্রে তাঁর বক্তব্যের অর্ধেকটাই ছিল দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্রের প্রশংসা ঘীরে।

জেলায় নির্বাচনী প্রচারে মদন মিত্র বলেন, যে অন্য জেলাগুলিতে তিনি দেখেছেন যে সেখানে বিরোধিদের সমর্থক তো দূরের কথা তাঁদের পতাকা পর্যন্ত চোখে পড়েনি। কিন্তু দক্ষিণ দিনাজপুরে এসে দেখলেন বিরোধিদের পতাকা নজরে পড়েছে। কিন্তু তিনি আশ্চর্যও হয়েছেন। রাস্তার ধারে পতাকা দেখছেন অথচ বিপ্লব মিত্র গ্রামে কোন সভায় গেলে সেখানে বিরোধি দলের প্রাক্তন পদাধিকারীরা যাঁরা মানুষের হয়ে কাজ করতে চান তাঁরা সরাসরি বিপ্লব মিত্রর সেই সভাই গিয়ে প্রকাশ্যে ঘোষনা করে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন।

উদয় পঞ্চায়েতের পৈতা দিঘী এলাকায় নির্বাচনী সভায় এমনও চাক্ষুস করেছেন যে সিপিআইএম বা অন্য কোন দল ছেড়ে প্রাক্তন প্রধান বা সদস্যরা সেই সভায় শরীরে হাজির হয়ে লিখিত দিয়ে জোড়া ফুলের পতাকা কাঁধে তুলে নিয়েছেন। শুধু তৃনমূলের পতাকা হাতে নেওয়াই সেখানে সিপিআইএম এর এক প্রাক্তন প্রধান মঞ্চে উঠে মমতা বন্দোপাধ্যায় ও তৃণমূলের প্রশংসা করার পাশাপাশি মাইক হাতে উচ্চারণ করেন “ছি: সিপিআইএম”।

এই জেলায় বিরোধীরা প্রার্থী দিলেও গ্রামে গঞ্জের মানুষজনের মধ্যে একটাই রব তৃণমূল ছাড়া উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই এবারেই তাঁরা তৃণমূলকেই পঞ্চায় তথা জেলাপরিষদে চান। দক্ষিণ দিনাজপুরে এর সমস্তটাই সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র একজনের জন্যই তিনি হচ্ছেন সকলের মেজদা বিপ্লব মিত্র। মদন মিত্র একথাও স্বীকার করেন যে তিনি গর্বিত। আন্দোলনের এমন বহু ঘটনা তাঁর স্মরণে রয়েছে। যে আন্দোলনে মমতা বন্দোপাধ্যায় ও তিনি নিজে ছাড়া আরও একজন সহযোদ্ধা ছিলেন। লড়াকু সেই মানুষটি হচ্ছেন দক্ষিণ দিনাজপুরের বিপ্লব মিত্র।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment