তৃণমূলের বুথ সভাপতির জমিতে থাকা পাম্প সেট ভাঙ্গচুর এবং দলিয় পতাকা আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে

তৃণমূলের বুথ সভাপতির জমিতে থাকা পাম্প সেট ভাঙ্গচুর এবং দলিয় পতাকা আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রাম:

তৃণমূলের বুথ সভাপতির জমিতে থাকা পাম্প সেট ভাঙ্গচুর এবং দলিয় পতকা ছিড়ে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। যদিও পুরো অভিযোগটি ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে বিজেপির পক্ষ থেকে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল ব্লকের পাতরা ছয় নম্বর অঞ্চলের পাথরকাটি গ্রামে। তৃণমূলের পক্ষ থেকে অভিযোগ পাথরকাটী গ্রামের বুথ সভাপতি গয়া প্রসাদ মাহাতোর জমিতে থাকা পাম্প সেট’টি বিজেপির দুষ্কৃতীরা রাতের অন্ধকারে গিয়ে ভাঙ্গচুর চালায়। তাতে পুরোপুরি ভাবে পাম্প সেট টি নষ্ট হয়ে যায়। তাদের আরও অভিযোগ পাম্প সেট ভাঙ্গচুর করার পর সেখান থেকে এসে গ্রামের মোট তৃণমূলের যে দলিয় পতকা গুলি লাগানো হয়েছিল সেগুলিকে ছিঁড়ে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে বিজেপির লোকজনেরা।

এবিষয়ে তৃণমুলের বুথ সভাপতি গয়া প্রসাদ মাহাত অভিযোগ করে বলেন, আমার জমিতে থাকা পাম্প সেট’টি বিজেপির আশ্রিত দুষ্কৃতী রা রাতের অন্ধকারে ভাঙ্গচুর করেছে। এমনকি আমাদের দলিয় পতকা গুলি ছিঁড়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। বিজেপি ভোটের আগে এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করতে চাইছে। আমরা এই পুরো বিষটি নিয়ে দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

অন্যদিকে বিজেপির ঝাড়গ্রাম জেলার সাধারন সম্পাদক সঞ্জিত মাহাত বলেন, পুরো ঘটনাটি ভিত্তিহীন। এটা সাজানো ঘটানো। এই ঘটনার সাথে আমাদের কর্মীরা কোনও ভাবে জড়িত নেই। এটা তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের ফলে এই ঘটনাটি ঘটেছে। সেই দোষ এখন আমাদের উপর চাপানোর চেষ্টা চলছে। তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছে। তাই এখন কি করবে খুঁজে পাচ্ছে না। তাই যেকোনও ঘটনা ঘটলেই আমাদের উপর দোষ চাপাচ্ছে।

তৃণমূলের ঝাড়গ্রাম জেলা সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, ভোটের দিন যত এগিয়ে আসছে বিজেপি ততই আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে। যার ফলে এই সব করে বেড়েচ্ছে। বিজেপি যাই করুক না একটিও ভোট পাবে না। গোটা রাজ্য জুড়ে সন্ত্রাস সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে বিজেপি। তবে এসব করে কোনও লাভ হবে না। বিজেপির।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *