Sunday, September 25, 2022
spot_img

মৃতদেহকে সামনে রেখে মানিকপাড়ার পেপার মিলের সামনে বিক্ষোভ

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রাম :

কর্মরত অবস্থায় কারখানার মেশিনে পিষ্ট হয়ে মৃত্যু হল এক শ্রমিকের। এই ঘটনার পর শ্রমিকের ক্ষতিপূরণের দাবিতে ২৮শে এপ্রিল কর্মবিরতি পালন করল কারখানার অন্যান্য শ্রমিকেরা। ঘটনাটি ঘটেছে ২৭শে এপ্রিল ঝাড়গ্রাম থানার মানিকপাড়া বালাজি পেপার মিলে। পুলিশ জানিয়েছে মৃত ওই শ্রমিকের নাম নলিনী মাহাত ( ৪৫)। বাড়ী মাণিকপাড়া এলাকার কুসুমঘাটী গ্রামে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনের ভরসা বলতে ছিলেন নলিনী বাবু।

জানা যায়, গত ১০ বছর ধরে বালাজি পেপার মিলে কাজ করে আসছিলেন নলিনী বাবু। এদিন তাঁর নাইটে ডিউটি ছিল। ডিউটিতে থাকার সময় ২৭শে এপ্রিল রাত ১১ টা নাগাদ অসাবধানতা বসত কারখানায় পিষ্ট হয়ে যায় নলিনী বাবু।

কারখানার শ্রমিক তরণী কান্ত মাহাত, তপন মাহাতরা বলেন, এদিন রাত ১১ টা নাগাদ কারখানার মেশিনে পিষ্ট হয়ে যান তিনি। পরে আমরা এসে দেখি রক্তাক্ত অবস্থায় নলিনী বাবুর দেহ চারিদিকে ছিন্ন ভিন্ন হয়ে রয়েছে। এরপর পুলিশকে খবর দেওয়া হলে মণিকপাড়া ফাঁড়ি থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঝাড়গ্রাম জেলা হাসপাতালে পাঠান।

মৃতার ভাগ্নে তুষার মাহাত বলেন, পরিবারের একজন মাত্র উপার্জন করতেন। তাই পরিবারটিকে মাসিক পেনশন দেওয়ার জন্য দাবি জানান। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, রাজ্য সরকার যদি দুঃস্থ পরিবারটির পাশে দাঁড়ায় তাহলে খুব ভালো হয়।

বালাজি পেপার মিলের আইএনটিটিইউসির সভাপতি কালিপদ মাহাত বলেন, মৃতার পরিবার যাতে ক্ষতিপূরণ পায় সেজন্য মালিকের সাথে আলোচনায় বসবো। এদিন কারখানায় শ্রমিকেরা কর্মবিরতি পালন করেছে। এদিকে নলিনী বাবুর মৃত্যুর খবরে গোটা কুসুমঘাটী এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

Related Articles

Stay Connected

0FansLike
3,497FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles