খাতা না আনায় ছাত্রকে বেধড়ক মার, অভিযুক্ত গৃহশিক্ষিকা

Share Bengal Today's News
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ

খাতা আনতে ভুলে গিয়েছিল সেন্ট স্টিফেন্স স্কুলের ক্লাস ফাইভের এক ছাত্র। অভিযোগ, এর জেরেই বেত দিয়ে মেরে ওই ছাত্রকে সাজা দিলেন তার গৃহশিক্ষিকা শুভ্রা পোদ্দার। ব্যথায় রাতে ঘুমোতে পারেনি ১১ বছরের ওই নাবালক। অভিযুক্ত শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ২৬শে এপ্রিল রাতেই দমদম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ছাত্রের বাবা।

নির্যাতিতা ছাত্রের অভিযোগ, “সন্ধ্যাবেলায় মিসের কাছে পড়তে গেছিলাম। কিছুক্ষণ বাদে মিস একটি খাতার বিষয়ে জানতে চান। ব্যাগে খাতা না পেয়ে আমি জানাই খাতা বাড়িতে ভুলে এসেছি। এরপরই মিস বেত এনে মারতে শুরু করেন। আমায় কাঁদতে দেখে বলেন, জোরে কাঁদলে গলায় বেত ঢুকিয়ে দেব।”

আক্রান্ত ছাত্রের বাবা বলেন, “আমি রাতে ব্যক্তিগত কাজে থানাতেই ছিলাম। বাড়ি থেকে ফোন আসে ওকে মিস খুব মেরেছে। গিয়ে দেখি ওর হাত ও পায়ে চাকা চাকা দাগ হয়ে গেছে। এভাবে যদি কথায় কথায় ক্লাস ফাইভের বাচ্চাকে মারধর করা হয় তাহলে সে কাউকে কিছু বলতেই সাহস পাবে না। কনফিডেন্স নষ্ট হয়ে যাবে। আমি চাই এর প্রতিবাদ হোক।”

উল্লেখ্য তবে এই প্রথম নয়, ওই শিক্ষিকা কথায় কথায় ছাত্রদের বেত পেটা করেন বলে অভিযোগ। ওই ছাত্রের পাশাপাশি তার এক সহপাঠীকে এর আগেও মেরেছেন বলে জানিয়েছে আক্রান্ত ছাত্র।

সম্পর্কিত সংবাদ