হাবড়ায় আত্মঘাতী গৃহবধূ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, হাবড়া:

২৬শে এপ্রিল হাবড়া থানার অন্তর্গত কুমড়া পঞ্চায়েতের খারো বেলেরমাঠ এলাকায় আত্মঘাতী এক গৃহবধূ। মৃতার নাম মঞ্জু হালদার (৪৩)।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ২৫শে এপ্রিল সকালে বৃদ্ধ বাবা কালিপদ হালদারকে নিয়ে ডাক্তার দেখাতে যান পেশায় রাজমিস্ত্রী ছেলে অশোক হালদার। ডাক্তার দেখিয়ে ফেরার পর বিকেল থেকেই দম্পতির মধ্যে বচসা শুরু হয়। এর দরুন এদিন রাতেও আত্মহত্যার চেস্টা করেন বছর ৪৩-এর গৃহবধূ মঞ্জু হালদার। তবে স্থানীয়রা তাকে বাচিয়ে নেন। এরপর ২৬শে এপ্রিল সকালে প্রতিদিনের মত পেশায় রাজমিস্ত্রি অশোক বাবু কাজে বেড়িয়ে যাওয়ার পর বাড়িতে একাই ছিলেন ওই মহিলা। আর ঠিক সেই সময় আত্মঘাতী হন বলে অনুমান স্থানীয়দের। মূলত এদিন মৃতের স্বামী বেরিয়ে যাওয়ার পর স্থানীয়রা তার ঘরে গেলে দেখতে পান নিজের ঘরেই কাপড়ের ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে গৃহবধূ। এরপর স্থানীয়রাই পুলিশে খবর দিলে হাবড়া থানার পুলিশ এদিন সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ মৃতদেহ উদ্ধার করে বারাসাত হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠান।

এছাড়া আরও জানা যায়, অশোকের ঘরের সামনেই তার বাবা মায়ের আলাদা সংসার। সংসার চলতো তার মায়ের পরিচারিকার কাজের টাকায়। তবে সামান্য বাবার ডাক্তার দেখানো নিয়ে এমন চরম সিদ্ধান্ত নেবে মঞ্জু তা কল্পনাও করতে পারছে না পরিবার সহ এলাকাবাসীরা। স্থানীয়দের দাবী, প্রতিটা সংসারে ছোটো খাটো টুকিটাকি অশান্তি সব পরিবারেই আছে তা বলে এভাবে নিজেকে শেষ করে দিতে হবে ! যদিও এই ঘটনায় হাবড়া থানার পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে।

সম্পর্কিত সংবাদ