‘ঢাকাকে বাঁচাতে হলে আইন প্রয়োগে কঠোর হতে হবে’

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বেঙ্গলটুডে প্রতিনিধি, ঢাকা:

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন (এলজিআরডি) ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ঢাকাকে স্বাস্থ্যসম্মত ও পরিবেশ বান্ধব একটি শহর হিসেবে টিকিয়ে রাখতে পর্যাপ্ত পরিমান উন্মুক্ত স্থান রাখতে হবে। পাশাপাশি ঢাকা মহানগরীকে বাঁচাতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাসমূহকে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে প্রয়োজনে কঠোর হতে হবে। ২৩শে এপ্রিল সচিবালয়ে এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলন কক্ষে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রণীত ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) রিভিউয়ের লক্ষ্যে গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির ১২ তম মুলতবি সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, ড্যাপের অন্তর্ভূক্ত অনেক স্থানে বিক্ষিপ্তভাবে শিল্প-কারখানা গড়ে উঠেছে। যেগুলো ওই স্থানে বসবাসরত মানুষ ও পরিবেশের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসব শিল্প-কারখানার বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। তিনি বলেন, ঢাকার জনসংখ্যা জ্যামিতিক হারে বাড়ছে। যথাযথভাবে শহরের পরিবেশ টিকিয়ে না রাখলে ভবিষ্যতে বিপর্যয় ঘটতে পারে। মিন্ত্রী অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে জলাশয় ও ভূমির প্রকৃতি রক্ষার জন্য সংশ্লিষ্টদের আহ্বান জানান।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ঢাকায় বসবাস ও পরিবেশ রক্ষায় কর্তৃপক্ষসমূহকে সজাগ থেকে কাজ করতে হবে। পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, ভূমি জরিপ অনুসারে যে জমি যেভাবে নির্ধারিত আছে তা রক্ষা করতে হবে।

এদিন সভায় উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্ত সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

সম্পর্কিত সংবাদ