আরব আমিরাতে শুধু সরকারিভাবে লোক পাঠানো হবে: বাংলাদেশ প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিজান রহমান, ঢাকা:

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে শুধুমাত্র সরকারিভাবে সংযুক্ত আরব আমিরাত-ইউএইতে লোক পাঠানো হবে। দেশটিতে সরকারিভাবে ১৯ ক্যাটাগরিতে লোক পাঠানো হবে। এ জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটি প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আগামী ৩ মাসের মধ্যে লোক পাঠানোর সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করবে। ২৩শে এপ্রিল বাংলাদেশের রাজধানীর প্রবাসীকল্যাণ ভবনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানিয়েছেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি। এ সময়ের মধ্যে ইউএইতে যাওয়ার জন্য কোনো বেসরকারি রিক্রুটিং এজেন্সির সঙ্গে কাউকে লেনদেন না করতে বলেছেন প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ইউএইতে শুধু সরকারিভাবে লোক যাবে। এক্ষেত্রে কোনো বেসরকারি রিক্রুটিং এজেন্সির ভূমিকা থাকবে না। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য ইউএইর শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণ সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারকের বিষয়টি তুলে ধরা হয়। পাঁচ বছর বন্ধ থাকার পর গত ১৮ই এপ্রিল বাংলাদেশ ও ইউএইর মধ্যে কর্মী পাঠানোর বিষয়ে সমঝোতা স্মারকটি সই হয়। ওই চুক্তি অনুযায়ী, ১৯ ক্যাটাগরিতে আরব আমিরাতে কর্মী নিয়োগ করা হবে। সেইসঙ্গে এ চুক্তি বাস্তবায়নে উভয় দেশের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে একটি যৌথ কমিটি গঠন করা হবে। ইউএইতে লোক পাঠানোর ক্ষেত্রে কমিটি সুনির্দিষ্ট কিছু দায়িত্ব পালন করবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, খুব শিগগিরই সংযুক্ত আরব আমিরাত সহ মধ্য প্রাচ্যের অনেক দেশে কর্মী নিয়োগের সব সব বাধা দূর হয়ে যাবে। শ্রমিকদের নেতিবাচক কর্মকান্ডের কারণেই সংযুক্ত আরব আমিরাতে বড় শ্রম বাজার খুলছে না। বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে বর্তমানে এক হাজার শ্রমিক দেশটির কারাগারে আটক রয়েছে বলেও মন্ত্রী বলেন, অপরাধের কারণেই আমরা ওই দেশে শ্রমিক প্রেরণে পিছিয়ে আছি। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নমিতা হালদার ও বিএমইটির মহাপরিচালক সেলিম রেজা।

সম্পর্কিত সংবাদ