কোটা বাতিল নয়, সংস্কার চায় সংসদীয় কমিটি

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিজান রহমান, ঢাকা:

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিল নয়, যৌক্তিক ও গ্রহণযোগ্য সংস্কার প্রয়োজন বলে মনে করেন। এজন্য কমিটি কোটা পদ্ধতি ‘সহজীকরণের’ সুপারিশ করেছে। বাংলাদেশ সংসদ ভবনে ২২শে এপ্রিল অনুষ্ঠিত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ২৮তম বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি এইচ এন আশিফুর রহমান। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক, এ. বি. এম ফজলে করিম চৌধুরী, র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, মুস্তাফা লুৎফল্লাহ, খোরশেদ আরা হক এবং জয়া সেন গুপ্তা বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

কমিটি সূত্র জানায়, বিষয়টি বৈঠকের এজেন্ডায় না থাকলেও কমিটির সদস্যরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন এবং কোটা পদ্ধতি সংস্কারের সুপারিশ করেন। বৈঠকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান ৫৬ শতাংশ কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে গত ১১ই এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে কোটাপদ্ধতি বাতিলের ঘোষণা দেন। তবে তিনি এটা বলেছেন যে, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজন হলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব আছেন তিনি বিষয়টি দেখবেন।

বৈঠক শেষে এ বিষয়ে কমিটির সভাপতি এইচ এন আশিকুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, কমিটি কোটাপদ্ধতি সহজীকরণের কথা বলেছে। সংবিধানে সমতাবিধানের (ইকুইটি) কথা বলা আছে। এসব বিষয় বিবেচনা নিয়ে যুক্তিযুক্তভাবে কোটাপদ্ধতি সংস্কার করা প্রয়োজন, যাতে এটা সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হয়। পাশাপাশি এটা নিয়ে যেন কোনো ষড়যন্ত্র বা দুরভিসন্ধি না হয়।

সম্পর্কিত সংবাদ