প্রচারে শাসক দল, দেওয়াল লিখনে মন্ত্রী

Share Bengal Today's News
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রাম:

আইনি জটিলতার জাঁতাকলে আটকে আছে পঞ্চায়েত ভোট। তবে আটকে নেই জঙ্গলমহলের শাসক দলের নেতাকর্মীরা। ভোট যবেই হোক প্রচারের জমি ছাড়া যাবে না এক ইঞ্চিও। সেই কথা মাথায় রেখে ঝাড়গ্রাম জেলার বিভিন্ন প্রান্তে জোর কদমে প্রচার শুরু করছে শাসক দলের নেতা,কর্মীরা। নেতা, কর্মীদের পাশাপাশি এবার দলের বিধায়ক , মন্ত্রীরা দলীয় প্রার্থীদের হয়ে প্রচার শুরু করেছেন।

১৯শে এপ্রিল রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণী কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী চূড়ামনি মাহাত তাঁর নিজের এলাকায় ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের প্রার্থীদের জন্য দেওয়াল লিখন করেছেন। এদিন লোধাশুলি অঞ্চলের লোধাশুলিতে গ্রামপঞ্চায়েত,পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলাপরিষদের প্রার্থীদের জন্য দেওয়াল লিখন করেন। এখনো সেই ভাবে প্রচার মিছিল না হলেও চূড়ামনি মাহাত তাঁর এলাকায় দেওয়াল লিখন শুরু করেছেন। চূড়ামনি বাবু বলেন এদিন লোধাশুলিতে দলীয় প্রার্থীদের জন্য দেওয়াল লিখন করেছি। এর আগেও কয়েকটি জায়গায় দেওয়াল লিখন করেছি। এরপর প্রার্থীদের হয়ে মিছিলও হবে এলাকায় এলাকায়।

অন্যদিকে এদিন ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম ব্লকের খড়িকামাথানি অঞ্চলের শিয়ালিয়া, মরাপাদা সংসদে নয়াগ্রামের বিধায়ক দুলাল মুর্মুর নেতৃত্বে এলাকার হাজার খানেক মানুষকে নিয়ে একটি বড় পদযাত্রা বের হয়। এই এলাকার প্রায় বারশো ভোটারের মধ্য প্রায় হাজার খানেক ভোটার এই পদযাত্রায় অংশ নেন। মিছিলের একেবারে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন নয়াগ্রামের বিধায়ক দুলাল মুর্মু। এর আগে তিনি চাঁদাবিলা অঞ্চলে বিশাল একটি মিছিলে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এদিন দুলাল বাবু গ্রাম সংসদ এলাকায় দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে মিছিল করলেন। এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি এবং জেলাপরিষদের প্রার্থীদের হয়ে এদিন পদযাত্রায় পাঁচ কিমি দীর্ঘ রাস্তায় পা মিলিয়ে ছিলেন বিধায়ক। এই প্রচারে তিনি বার্তা রাখেন মুখ্যমন্ত্রীর মনোনিত প্রার্থীদের জয় যুক্ত করার জন্য। বিজেপি মিথ্যাচার ও মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে দেশকে লণ্ডভণ্ড করে দিচ্ছে। জঙ্গলমহলের উন্নয়ন ও শান্তী বজায় রাখার জন্য তৃণমূলকেই ভোট দিতে হবে। দুলাল বাবু জানান ব্লক, অঞ্চলের পাশাপাশি গ্রাম সংসদ ভিত্তিক প্রচার চলবে। প্রার্থীদের জয়ের বিষয়ে একশো শতাংশ বেশি নিশ্চিত দুলাল বাবু। তবে এদিন প্রচারের ময়দানে বিধায়ক, মন্ত্রীদের পেয়ে যথেষ্ট উৎসাহি শাসকদলের নেতা কর্মীরা।

সম্পর্কিত সংবাদ