বাংলাদেশে শিক্ষার্থীদের কোটা সংস্কারের দাবি যৌক্তিক, ঢাকা শিক্ষক সমিতির একাত্মতা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিজান রহমান, ঢাকাঃ

চলমান কোটা সংস্কারের দাবিকে যৌক্তিক উল্লেখ করে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি। দ্রুততম সময়ের মধ্যে এ বিষয়ে সরকারের উচ্চপর্যায়ের সুস্পষ্ট সিদ্ধান্ত ঘোষণার আহ্বান জানিয়েছেন তারা। ১১ ই এপ্রিল দুপুর দেড়টার দিকে সমিতির সভাপতি এ এস এম মাকসুদ কামাল ও সাধারণ সম্পাদক শিবলী রুবাইতুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ঢাবি টিএসসিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উপস্থিত হয়ে আন্দোলনে একাত্মতা ঘোষণা করেন।

শিক্ষার্থীর দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে এক লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, শিক্ষক সমিতি মনে করে, এ কোটা সংস্কার এখন যুগের চাহিদা। একই সঙ্গে সমিতি শিক্ষার্থীদের নিয়মতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের সময় কোনো ধরনের পুলিশি ব্যবস্থা নেওয়া থেকে বিরত থাকতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানানো যাচ্ছে। এছাড়া শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বিধানের কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানিয়েছে সমিতি।

উল্লেখ্য, কোটা সংস্কারে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবিগুলো হলো- কোটা সংস্কার করে ৫৬ থেকে ১০ শতাংশে কমিয়ে আনা, কোটা প্রার্থী না পাওয়া গেলে শূন্যপদগুলোতে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া, চাকরি নিয়োগ পরীক্ষায় কোটা সুবিধা একাধিকবার ব্যবহার না করা, কোটায় কোনো ধরনের বিশেষ নিয়োগ পরীক্ষা না নেয়া এবং চাকরি ক্ষেত্রে সবার জন্য অভিন্ন কাট মার্ক ও বয়সসীমা নির্ধারণ করা। এমনকি এ আন্দোলনের অংশ হিসেবে গত রবিবার দুপুরে কোটা সংস্কার দাবিতে শাহবাগে জড়ো হয়ে পদযাত্রা কর্মসূচি করে শিক্ষার্থীরা। পরে তাদের অবস্থানে রাত ৮টার দিকে পুলিশ চড়াও হলে সংঘর্ষ হয়। এক পর্যায়ে এই সংঘর্ষ পুরো ক্যাম্পাস এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এতে পুলিশ সহ দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হন। অনেককে আটক করে পুলিশ। এরপর গত সোমবারও দিনভর বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে বিকালে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জাসান খান কামালের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের ২০ সদস্যের প্রতিনিধি বৈঠক করেন।

সম্পর্কিত সংবাদ