জঙ্গলমহলে প্রথম ভোট প্রচারে এসে প্রকৃতির রোসে পড়ে পিছু হটলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দীলিপ ঘোষ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রামঃ

জঙ্গলমহলে প্রথম ভোট প্রচারে এসে প্রকৃতির রোসে পড়ে পিছু হটলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দীলিপ ঘোষ। প্রকৃতিকে দোষারোপ করতে পারলেন না তিনি। একটানা ঝড়, বৃষ্টির কারনে ফাঁকা মাঠে এসে পৌছান বিজেপিরর রাজ্য সভাপতি। ম্লান মুখে দীলিপ বাবু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে বলেন কিষান মান্ডি তৈরি হলেও এক কেজি আলুও বিক্রি হয়নি। সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের বিল্ডিং হয়েছে সাদা রং হয়েছে কিন্তু ডাক্তার নেই। জঙ্গলমহলে আদিবাসীদের উপর অত্যাচার চলছে। এটা চলবে না।

১২ই এপ্রিল গোপীবল্লভপুর এক ব্লক থেকে বিজেপির প্রচার শুরু অভিযোনে রাজ্য সভাপতি দীলিপ ঘোষ। এদিন বেলা আড়াইটা নাগাদ গোপীবল্লভপুরের যাত্রা ময়দানে সভা শুরুর কথা থাকলেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বিকেল সাড়ে ৪টের পরে সভাস্থলে এসে পৌছান। কিন্তু ঝড় বৃষ্টি শুরু হওয়ার ফলে জলের দাপটে সভাস্থল ফাঁকা হয়ে যায়। যে যেদিকে পারে পালিয়ে বাঁচে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি যখন সভাস্থলে এসে পৌছান তখন একেবারে ফাঁকা ময়দান। জনা কয়েক জন সমর্থক ময়দানে দাঁড়িয়ে। বিজেপির রাজ্যের প্রচার শুরু গোপীবল্লভপুর থেকে আর শেষ হবে আলিপুরদুয়ারে।

এদিন দিলীপ বাবু রাজ্য সরকার তথা শাসক দলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, আদিবাসীদের ঠকানো,অত্যাচার থেকে শুরু করে বিভিন্ন সরকার বিরোধী বক্তব্য রাখেন। উচ্চ আদালতের নির্বাচন প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ দেওয়ার প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ বাবু বলেন, আমরা যা চেয়েছিলাম হাই কোর্ট তা মেনে নিয়েছে। তিনি আরও বলেন,”তৃণমূল জঙ্গলমহলের মানুষদের ,আদিবাসীদের ঠকিয়েছ। অদিবাসী মহিলাদের উপর অত্যাচার হচ্ছে,খুন করা হচ্ছে। এর প্রতিবাদ করতে এসেছি। আমারা ঝাড়গ্রাম জেলার গ্রামপঞ্চায়েত,পঞ্চায়েত সমিতি.জেলাপরিষদ সমস্ত আসনে প্রার্থী দিয়েছি। সব আসনেই আমরা জিতব তার শুভ সুচনা হল আজ। ২২টা রাজ্যে আমাদের সরকার ক্ষমতায় আছে। উন্নয়ন দেখে লোকে ভোট দিয়েছে আমাদের। এই সরকার সিভিক, প্যারাটিচার ছাড়া কাউকে চাকরি দেয়নি।

সম্পর্কিত সংবাদ