সন্দেশখালীতে বিজেপির কর্মী সমর্থক দের বাড়ি ভাঙচুর ও লুপটাপ,তদন্তে আশ্বাস প্রাশাসনের

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি, বেঙ্গল টুডেঃ

পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত ভোট ঘোষনা পর পর রাজ্যের নানা প্রান্তে গন্ডোগল শুরু হতে দেখা যায়। এর দরুন উওর ২৪ পরগনা বিভিন্ন জেলা সহ বসিরহাটেও নানা শাসক, বিরোধী দল সংর্ঘষ চলছে। এমনকি শাসক দলের সন্ত্রাশে গত কয়েকদিনে ঘর ছাড়া বসিরহাটের সন্দেশখালি, হাড়োয়া, মিনাখাঁ, ন্যাজাট, হাসনাবাদ, সহ বিভিন্ন জায়গায় অধিকাংশ বিজেপি প্রার্থী থেকে শুরু করে নেতা কর্মীরা। আর এবার বিজেপি সমর্থকদের সন্ত্রস্ত করতে ১১ই এপ্রিল রাতে হামলা চালানো হয় সন্দেশখালির জেলিয়াখালি পশ্চিম খন্ড এলাকায়।

অভিযোগ, এদিন সন্ধ্যার পরে প্রায় পঁয়ত্রিশটি মোটর ভ্যান নিয়ে গ্রামে হামলা করে সশস্ত্র দুষ্কৃতীরা। বেছে বেছে বিজেপি সমর্থিত বাসিন্দাদের বাড়ি ঢুকে মারধোরের পাশাপাশি ভাঙচুর করা হয় বাড়ি-ঘর ও ঘরের জিনিষপত্র। জেলিয়াখালির জেলাপরিষধের ১৬ নম্বর সংসদের প্রার্থী জয়ন্ত কুমার মন্ডল, বিজেপি কর্মী দিলিপ গোস্বামী, প্রদীপ মন্ডল, অরুন মিস্ত্রী, তরুন মিস্ত্রী, ভবসিন্ধু সরকার, দেবপ্রসাদ মন্ডল সহ বেশ কয়েকজনের বাড়ি হামলা করে দুস্কৃতিরা। মারধোর, ভাঙচুর এমনকি মহিলাদেরও সম্মানহাণি করা হয় বলে অভিযোগ। এছাড়া দুষ্কৃতীরা লুটপাট করে মোটর ভ্যান বোঝাই করে নিয়ে যায় ঘরের টিভি, স্যালো মেশিন, পাওয়ার টিলার, আসবাবপত্র, সোনার গহনা, এমনকি বাড়ির গৃহপালিত পশু গরু, ছাগল সহ হাস, মুরগি। অপরদিকে আক্রান্ত বিজেপি সমর্থিত পরিবারগুলিকে গ্রামের মধ্যে নজরবন্দী করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে বিজেপির পক্ষ থেকে। যদিও এবিষয়ে স্থানীয় তৃণমুল কংগ্রেসের তরফে কোনও উত্তর পাওয়া যায়নি।

পুলিশি সুত্রে খবর, এর দরুন সন্দেশখালির তৃণমুল নেতা শাজাহান শেখ এর নেতৃত্বে জেলিয়া খালির তৃণমুল নেতারা এই লুটপাটের সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ তুলে বসিরহাট পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দ্বায়ের করে বসিরহাট জেলা বিজেপি। আর এই পুরো বিষয়টি খবর নিয়ে তদন্ত করে দেখা হবে বলে আশ্বাস দেন বসিরহাটের পুলিশ সুপার কে শবরী রাজকুমার। কিন্তু এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

সম্পর্কিত সংবাদ