ফেসবুকে তথ্য চুরি আটকাতে আরও কড়া হচ্ছেন জুকেরবার্গ

Share Bengal Today's News
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ওয়েবডেস্ক, বেঙ্গল টুডেঃ

বর্তমানে ফেসবুকের তথ্য ফাঁস কান্ডে জেরবার অবস্থা ফেসবুক সিইও মার্ক জুকেরবার্গের। এর দরুন আগামী দিনে ফেসবুকে তথ্য চুরি হওয়া নিয়ে নতুন কিছু উপায় অবলম্বন করেন। এমনকি ভারত সহ বিশ্বের বিভিন্ন নির্বাচনের নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর ফেসুবক। এমনটাই জানালেন সংস্থার সিইও মার্ক জুকেরবার্গ। সম্প্রতি, কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা নামে এক ব্রিটিশ সংস্থার বিরুদ্ধে কয়েক কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য চুরি করার অভিযোগ ওঠে। এই নিয়ে বিশ্বজুড়ে তোলপাড় হয়।

আর সেই ঘটনার আঁচ পড়ে ভারতেও। অভিযোগ ওঠে বিভিন্ন নির্বাচনে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার সাহায্য নিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। একে অপরের দিকে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাকে ব্যবহার করার অভিযোগ আনে কংগ্রেস ও বিজেপি। প্রশ্ন ওঠে, ভারতের নির্বাচনে কি কলকাঠি নেড়েছে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা?

এই প্রেক্ষিতে এদিন মার্কিন সেনেটে দাঁড়িয়ে জবাব পেশ করেন জুকেরবার্গ। তাঁর দাবি, তথ্যের গোপনীয়তা ও নির্বাচনে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ ইস্যু নিয়ে ফেসবুকের বোর্ড মিটিংয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা হয়েছে।

জুকেরবার্গ বলেন, এখনও পর্যন্ত যতগুলি সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে ফেসবুক, এটি তাঁর মধ্যে অন্যতম জটিল। সমস্যা সমাধান করা আমাদের দায়িত্ব। তিনি যোগ করেন, চলতি বছরে এই বিষয়টির ওপরই সর্বাধিক গুরুত্ব দেবেন।

এছাড়া তিনি আশ্বাস দিয়ে বলেন, ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ বিভিন্ন দেশের নির্বাচনের নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। ২০১৮ নির্বাচনের দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্তর্বর্তী নির্বাচনের পাশাপাশি ভারত, মেক্সিকো, পাকিস্তান ও হাঙ্গেরিতে নির্বাচন হবে। সর্বত্র নিরপেক্ষতা বজায় রাখাই সংস্থার লক্ষ্য।

জুকেরবার্গ জানান, ফেক অ্যাকাউন্ট চিহ্নিত করার জন্য নতুন আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) সিস্টেম বসানো হয়েছে। একইসঙ্গে, নির্বাচনে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে কি না, তার ওপরও নজর রাখা এবং বন্ধ করা সম্ভব হবে। তিনি যোগ করেন, সংস্থা এমন একটি সফটওয়্যার তৈরি করেছে যার মাধ্যমে কোনও ব্যক্তি ভুয়ো অ্যাকাউন্ট তৈরি করলে তা ধরা পড়ে যাবে।

যদিও ইতিমধ্যেই ফেসবুকের ৪টি বিষয়ের উপর কড়াকড়ি করেছেন তারা। তা হল-

১ :  অন্যের যে কোনও তথ্য শেয়ার করা-

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, তথ্য চুরি রুখতে ফেসবুক গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্যের ব্যাপারে আরও কড়া হতে চাইছে। অন্যের পোস্ট শেয়ার করা (বিশেষ করে গ্রুপ থেকে), একই ইভেন্টে যাওয়ার খবর শেয়ার করার মতো বিষয়গুলির দিকে নজর দেওয়া হয়েছে।

২ : খুব বেশি ব্যক্তিগত তথ্য ডেভেলপারদের নাগালে থাকা-

ডেভেলপাররা যাতে গ্রাহকদের খুব বেশি ব্যক্তিগত তথ্যের নাগাল না পান, সেদিকেও লক্ষ রাখা হচ্ছে। জানা যাচ্ছে, গ্রাহকদের কোনও কোনও ব্যক্তিগত তথ্য জানতে হলে অনুমোদন নিতে হবে বা চুক্তি সই করতে হবে।

৩ : থার্ড পার্টি অ্য়াপের হাতে খুব বেশি তথ্য চলে যাওয়া-

থার্ড পার্টি অ্যাপের মাধ্যমেই কিন্তু তথ্য চুরির ঘটনা ঘটেছে। তাই সেদিকেও বিশেষ নজর রাখছে ফেসবুক। সাধারণত বহু অ্যাপই গ্রাহকদের ব্যক্তিগত বহু তথ্যের অ্যাকসেস চায়। ফেসবুকের নতুন নিয়মে এবার থেকে কেবল নাম, প্রোফাইল ফোটো ও ইমেল-এর বেশি আর কোনও তথ্যই এই ধরনের অ্যাপগুলি চাইতে পারবে না। এমনকী, কোনও অ্যাপ যদি গ্রাহকরা শেষ ৩ মাসে ব্যবহার না করে থাকেন, সেক্ষেত্রে ডেভেলপাররা অ্যাকসেস পাবেন না সেই গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্যের।

৪ : ফোন নম্বর বা ইমেল দিয়ে সার্চ করা-

ফেসবুকে কাউকে খুঁজে বের করতে হলে অনেক সময়ই তাঁদের ফোন নম্বর বা ইমেলও কাজে লাগে। বিশেষ করে একই নামের অন্য ব্যক্তিদের ভিতর থেকে উদ্দিষ্ট ব্যক্তিকে খুঁজে বের করতে হলে। এবার থেকে এটা আর করা যাবে না বলে জানিয়েছেন মার্ক।

সম্পর্কিত সংবাদ