১৫ মে গাজীপুর ও খুলনায় ভোট

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বেঙ্গলটুডে প্রতিনিধি, ঢাকা:

গাজীপুর ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনে আগামী ১৫ই মে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। ৩১ শে মার্চ শনিবার দুপুরে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে ভোট গ্রহণের এই তারিখ রেখে দুই সিটির তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা। তিনি জানান, গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশনে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১২ই এপ্রিল। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১৫ ও ১৬ ই এপ্রিল, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ২৩ এপ্রিল। এরপর প্রতীক বরাদ্দ ২৪ এপ্রিল। আর ভোটগ্রহণ করা হবে ১৫ মে।

ইসি সূত্রে জানায়, সংসদ নির্বাচনের আগেই গাজীপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট সিটিতে ভোটগ্রহণ করতে প্রস্ততি নেয় নির্বাচন কমিশন। যেহেতু এর আগে ঢাকার দুই সিটিতে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরও জটিলতা থাকায় স্থগিত করা হয়েছে। এজন্য এসব সিটিতে কোনো জটিলতা আছে কি না তা আগে থেকেই জানার জন্য দুই দফায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয় ইসি। ওই চিঠির জবাবে মন্ত্রণালয় বুধবার ইসিকে জানায় এসব নির্বাচনে কোনো জটিলতা নেই। আসছে রমজানের আগে গাজীপুর ও খুলনা সিটি ভোটের পর যথা সময়েই বাকি তিন সিটিতে ভোট আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে ইসি।

যদিও এরই মধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা বলেছেন, জুলাইয়ের মধ্যে এসব নির্বাচন সম্পন্ন করতে চায় কমিশন। ইসির সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে ৪ সেপ্টেম্বর, সিলেটের ৮ অক্টোবর, খুলনার ২৫ সেপ্টেম্বর, রাজশাহীর ৫ অক্টোবর এবং বরিশালের ২৩ অক্টোবর। স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন অনুযায়ী করপোরেশনের প্রথম বৈঠক থেকে ৫ বছর মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার ১৮০ দিন আগে যে কোনো সময় নির্বাচন করতে হবে। গাজীপুর সিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয় ২০১৩ সালের ৫ সেপ্টেম্বর। সেই হিসেবে গাজীপুর সিটিতে ৮ মার্চ থেকে নির্বাচনের দিন গণনা শুরু হয়েছে।

এছাড়া খুলনায় ২০১৩ সালের ১৫ জুন প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সে হিসেবে এই সিটিতে নির্বাচনের দিন গণনা শুরু হয়েছে ৩০ মার্চ থেকে। রাজশাহীতে প্রথম সভা হয় ২০১৩ সালের ৬ অক্টোবর। সে হিসেবে দিন গণনা শুরু হবে ৯ এপ্রিল। সিলেটে প্রথম সভা হয় ২০১৩ সালের ৯ অক্টোবর, সে হিসেবে দিন গণনা শুরু হবে ১১ এপ্রিল এবং বরিশাল সিটিতে প্রথম সভা হয় ২০১৩ সালের ২৪ অক্টোবর, সে হিসেবে ২৭ এপ্রিল থেকে নির্বাচনের দিন গণনা শুরু হবে। ২০১৩ সালের ১৫ জুন একই দিন সিলেট, খুলনা, রাজশাহী ও বরিশাল এবং ৬ জুলাই গাজীপুর সিটি করপোরেশনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

সম্পর্কিত সংবাদ