আদিবাসী সমাজের গুনিজনদের সংবর্ধনা

Share Bengal Today's News
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সন্দীপ ঘোষ, ঝাড়গ্রাম:

২৭ শে মার্চ আদিবাসী সমাজের গুনীজনদের সংবর্ধনা দিল অনগ্রসর শ্রেণী কল্যান দফতর ও আদিবাসী নিগম পরির্ষদ। এদিন ঝাড়গ্রাম জেলার জেলা শাসকের মিটিং হলে অনুষ্ঠিত হয় আদিবাসী গুণীজনদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন উপস্থিত বিশিষ্ট অতিথিরা। এদিন আদিবাসী সমাজের ৩ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বকে বিশেষ সংবর্ধিত করা হয়। এই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে সাধু রামচাঁদ মুর্মু স্মৃতি পুরস্কার, লালশুকরা ওরাও স্মৃতি পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। বাঁকুড়া জেলার সাঁওতালি সাহ্যিতিক ও লেখক দুর্গাদাস সরেন, বীরভুম জেলার খ্যাতনামা অঙ্কন শিল্পী বৈদ্যনাথ মুর্মু এবং আন্তর্জাতিক কেন্দরী বাদক করন হেম্ব্রমের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। এদের প্রত্যেকের হাতে পুরস্কার তুলে দেন আদিবাসী উন্নয়ন মন্ত্রী জেমস্ কুজুর ও রাষ্ট্র মন্ত্রী সন্ধ্যারানী টুডু। এই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে আদিবাসী সমাজের বিভিন্ন কৃতিত্বের জন্য বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বদের হাতে একলক্ষ টাকার চেক, স্মারক, তুলে দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আদিবাসী উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী জেমস্ কুজুর,অনগ্রসর শ্রেনী কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী চুরামনি মাহাত, আদিবাসী উন্নয়ন দপ্তরের রাষ্ট্র মন্ত্রী সন্ধ্যা রানী টুডু, রাষ্ট্র মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদা, নয়াগ্রামের বিধায়ক দুলাল মুর্মু , ঝাড়গ্রামের বিধায়ক সুকুমার হাঁসদা, বিনপুরের বিধায়ক খগেন্দ্রনাথ হেম্ব্রম, জেলাশাসক আর অর্জুন, মহকুমাশাসক নকুল চন্দ্র মাহাত, সহ আদিবাসী সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা। এদিনের অনুষ্ঠানে আদিবাসী সমাজের উন্নয়ন, সমাজকে কিভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় সে নিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রত্যেক বক্তা।

এছাড়াও আদিবাসীদের ভাষা সংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখার কথাও বলেন বক্তারা। বর্তমান সরকারের আমলে আদিবাসী জনজাতি মানুষজনেরা আজ আর পিছিয়ে নেই। আদিবাসী গুনিজনদের নিয়ে প্রত্যেক ব্লক ভিত্তিক করার সিধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। বাম আমলে এই অনুষ্ঠান শুধুমাত্র রাজ্য স্তরীয় একটা অনুষ্ঠান করা হত কলকাতায়। পরে তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে আদিবাসী মানুষজনদের উন্নয়নের উপর বিশেষ গুরুত্ব দেন।

উল্লেখ্য জেনিভাতে রাষ্ট্রপু্ঞ্জে প্রতিনিধিত্ব করছেন প্রথম সাঁওতালি নারী ঝাড়গ্রাম লোকসভার সাংসদ ড: উমা সরেন। সাংসদ সেখানে তাঁর নিজের ভাষা অর্থাৎ সাঁত্ততালিতে বক্তব‍্য রাখছেন। এদিনের অনুষ্ঠানে আদিবাসী উন্নয়ন মন্ত্রী জেমস কুজুর বলেন, আগে আদিবাসীদের কোন লিপি ছিল না। আমাদের ইতিহাস অনেক ভুল হয়েছে, আদিবাসীরা নিজের ইতিহাস নিজেরা লেখেনি। কিন্তু আজাদির পরেও আদিবাসীদের মানসম্মান ছিল না। আমাদের মা মাটি মানুষের সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী যখন মুখ্যমন্ত্রী হলেন তারপর থেকে অনেক পরিবর্তন এসেছে। আমাদের মধ্যে যে ভালো গান করে বা বাজনা বাজায় তা আমরা জানতাম না। কিন্তু এই সরকার আসার পরে এটা স্ট্রিম লাইন করেছে। এর দরুন ৯ টি স্কুল তৈরী হয়েছে। বিভিন্ন জেলা জুড়ে অলচিকি ও সাঁওতালি ভাষাতে প্রাইমারী থেকে হাইস্কুল ও কলেজ পর্যন্ত শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। আমরা আমাদের ভাষার কথা ভুলতে বসেছি কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী সাঁওতালি ও অলচিকি ভাষাকে আমাদের মধ্যে বাঁচিয়ে রাখতে চেষ্টা করছেন।

সম্পর্কিত সংবাদ