সম্পত্তি হাতাতে বাবা গোপাল সাউকে খুন করতে চেয়েছিল ছেলে বিকাশ সাউ!!

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অরিন্দম রায় চৌধুরী, ব্যারাকপুরঃ

ব্যারাকপুর এ গোপাল সাউ এর উপর গুলি চলার ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হল গোপাল সাউ এর ছেলে বিকাশ সাউকে। প্রসঙ্গত বাবা গোপাল সাউ পেশায় সরকারি বাসের চালক, কিন্তু সুদের কারবার করতেন। গোপালের পিঠে গুলি লাগে। কিন্তু, বেঁচে যান। কলকাতায় এক বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে তাঁর চিকিৎসা চলছে।

এরপরই ঘটনার তদন্তে নামে ব্যারাকপুর থানার পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় গোপালের ছেলে বিকাশকে। বেশ কিছু অসংলগ্ন কথা বলে সে। এরপরই সন্দেহ দানা বাঁধে। বার বার জিজ্ঞাসাবাদের পর অবশেষে পুলিশ জানতে পারে, ভাড়াটে খুনি লাগিয়ে গোপালবাবুকে খুনের পরিকল্পনা করেছিল বিকাশই।

এই বিষয় ব্যারাকপুর থানার পুলিশ সূত্রের খবর, বিকাশের বাজারে কয়েক লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। অথচ গোপালবাবু প্রচুর সম্পত্তির মালিক হলেও ছেলেকে আর্থিক সাহায্য করতেন না। ব্যাবসা ও ঋণ শোধ করার জন্য বারবার গোপালবাবুর কাছে টাকা দাবি করে বিকাশ। কিন্তু টাকা দিতে অস্বীকার করে গোপালবাবু। এরপরই বন্ধু অমিতের সঙ্গে আর্থিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা করে বিকাশ এবং খুনের পরিকল্পনা করে তারা।

উল্ল্যেখ্য সম্পত্তি হাতাতেই বাবাকে খুন করতে চেয়েছিল বিকাশ সাউ। পাশে পেয়েছিল অমিত সিং নামে এক বন্ধুকে। আজ ভোরে তাদের দু’জনকেই গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সঙ্গে সুপারি কিলার অঙ্কিতকেও গ্রেপ্তার করা হয়। আজ ২৩শে মার্চ তাদের ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হয়ে॥

এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর পুলিশ সূত্রে খবর বাবাকে খুনের জন্য অমিতের সাহায্যে ৬০ হাজার টাকায় সুপারি কিলার ভাড়া করে বিকাশ। নাম অঙ্কিত সাউ। অগ্রিম হিসেবে ২০ হাজার টাকা অমিতকে দেয় বিকাশ। কিন্তু, অঙ্কিতের হাতে যায় মাত্র ৫০০ টাকা। মাত্র ৫০০ টাকা হাতে পেয়ে খুন করতে গিয়েছিল অঙ্কিত। তাহলে অগ্রিম দেওয়া ২০০০০ টাকার বাকি টাকা? এই বিষয় পুলিশের বক্তব্য, এই ঘটনায় এখনও অধরা আরও এক দুষ্কৃতী যে সুপারি কিলার সরবরাহ করেছে। ২০ হাজার টাকা তাকেই দিয়েছিল অমিত। কিন্তু সে অঙ্কিতকে মাত্র ৫০০ টাকা ও বন্দুক দিয়েছিল। তার খোঁজে তল্লাশি চলছে। গত রবিবারই ক্লাস টুয়েলভের পড়ুয়া অঙ্কিত সাউ খুন করতে যায় গোপালকে। ব্যারাকপুর সদর বাজারে গোপালকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পিঠে লাগে সেই গুলি। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে স্থানীয় হাসপতাল ও পরে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় কিন্তু প্রাণে বেঁচে যান গোপাল সাউ। আজ আসামীদের ব্যারাকপুর আদালতে হাজীর করা হলে বিচারক বিকাশ সাউ এর ১৪ দিনের জেল হেফাজত আর বাকি দুজনের ৪ দিনের পুলিশ হেফাজতের আদেশ দিয়েছেন॥

সম্পর্কিত সংবাদ