বসিরহাট থানার ঢিল ছোড়া দূরে টেলিফোন কেবেল চুরি

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, বসিরহাট:

২০ শে মার্চ বিকেল থেকেই বন্ধ হয়ে যায় বসিরহাট থানার টেলিফোন পরিষেবা। এরপর ২১ শে মার্চ সকালে টেলিফোন লাইন ঠিক করতে গিয়ে ধরা পড়ে প্রায় দশ ফুট কেবেল চুরির ঘটনা।

সুত্রের খবর, ২০ শে মার্চ বিকেল থেকেই বন্ধ হয়ে যায় বসিরহাট থানার টেলিফোন পরিষেবা। এরপর সেদিনই তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় টেলিফোনের লাইনম্যানকে। কিন্তু ততক্ষণে অফিস ছুটি হয়ে যাওয়ায় রাতভর বন্ধ থাকে থানার টেলিফোন পরিষেবা। এর জেরে থানার সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে সমস্যায় পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে।

এরপর ২১ শে মার্চ সকালে অফিস শুরু হওয়ার পরে টেলিফোন দপ্তরের কর্মীরা কাজে এসে দেখতে পান থানার সঙ্গে যুক্ত টেলিফোন লাইনের দশ জোড়া তারের প্রায় দশ ফুট কেবেল চুরির ঘটনা। এরপরই বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে নড়েচড়ে বসেন টেলিফোন দপ্তর।

এক্ষেত্রে টেলিফোন দপ্তরের বসিরহাটের সুপারিন্টেন্ডেন্ট রমেশ রাজভর জানান, বিষয়টি নিয়ে বসিরহাট থানায় লিখিত ভাবে অভিযোগ জানাতে টেলিফোন কর্মীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে বসিরহাটের পুলিশ সুপার কে শবরী রাজকুমার বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দেখা হবে’।

তবে বসিরহাট থানার সামনে লাগানো সিটি ক্যামেরার সামনে থেকে কেবেল চুরির ঘটনায় ইতিমধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

সম্পর্কিত সংবাদ