অপশক্তির বিষয়ে ছেলেমেয়েদের সচেতন করুন : প্রধানমন্ত্রী

অপশক্তির বিষয়ে ছেলেমেয়েদের সচেতন করুন : প্রধানমন্ত্রী

মিজান রহমান, ঢাকা:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ এবং মাদকের বিরুদ্ধে তাঁর অবস্থান পুণর্ব্যক্ত করে ছেলেমেয়েদের এসব অপশক্তির বিষয়ে সচেতন করতে অভিভাবক, শিক্ষক এবং ধর্মীয় নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা প্রত্যেকে আমাদের শিশু থেকে যুবক শ্রেনী কোথায় যায়, কি করে, কার সঙ্গে মেশে সেদিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দেবেন। যেন কেউ সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদকাশক্তির সাথে সম্পৃক্ত হতে না পারে। তারা যেন সুস্থ জীবন পায়। আর বাবা-মা, ভাইবোনকে নিয়ে সুখে শান্তিতে কাটাতে পারে তারই পদক্ষেপ নিতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘কোন ছেলে-মেয়ে যেন বিপথে না যায় সেদিকে দৃষ্টি দেওয়ার জন্য আমি সকলকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাই।’

শেখ হাসিনা ১৭ মার্চ দুপুরে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার ৯৯তম জন্মদিন এবং জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আযোজিত শিশু সমাবেশ, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে একথা বলেন। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এবং বাংলাদেশ শিশু একাডেমী এবং গোপালগজ্ঞ জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় জাতির পিতার সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সে এই অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়। মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন। গোপালগঞ্জের এস এম সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্র আরাফাত হোসেন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। গোপালগঞ্জের সোনালী স্বপ্ন একাডেমীর চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রী প্রিয়ন্তি সাহা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিমা বেগম, ঢাকা এবং গোপালগঞ্জের বিভাগীয় কমিশনার বজলুল আহমেদ এবং মোখলেসুর রহমান সরকার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রী পরিষদ সদস্যবৃন্দ, মন্ত্রী পরিষদ সচিব, তিনবাহিনী প্রধানগণ, আওয়ামী লীগের জেষ্ঠ্য নেতৃবৃন্দ, সরকারি পদস্থ কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। দিবসটির স্মরণে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর ছোট ছেলে শেখ রাসেলের নামে একটি স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করেন। এ সময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার এবং ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মন্ডল উপস্থিত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানে তাঁর রচিত এবং বাংলাদেশ শিশু একাডেমী প্রকাশিত “আমাদের ছোট্ট রাসেল সোনা” শীর্ষক প্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় শিশু একাডেমির পরিচালক আনজির লিটন উপস্থিত ছিলেন। “উঠবো জেগে ছুটবো বেগে” শীর্ষক একটি ভিডিও চিত্রও অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত হয়। পরে প্রধানমন্ত্রী ৭ মার্চ উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর সমাধি কমপ্লেক্সে একটি বই মেলার উদ্বোধন করেন এবং ‘আমার ভাবনায় ৭ মার্চ’ শীর্ষক শিশুদের একটি চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা পরিদর্শন করেন। তিনি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া এবং কোটালিপাড়ার দুজন দুঃস্থ মহিলার মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করেন এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত শিশু-কিশোরদের সাহিত্য ও সংস্কৃতি প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করেন।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *