৪ বছরের শিশু কে যৌন হেনস্থার অভিযোগে গ্রেফতার শিক্ষক

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, মাটিয়া:

উত্তর ২৪ পরগনার মাটিয়া থানার অন্তর্গত আড়তদা গ্রামে ৪ বছরের শিশুকে যৌন হেনস্থার অভিযোগ ওঠে স্থানীয় এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তের নাম তরিকুল ইসলাম। বর্তমানে নির্যাতিতা শিশুটি বসিরহাট জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সুত্রের খবর, ১৩ই মার্চ মাটিয়া থানার অন্তর্গত আড়তদা গ্রামে এক চার বছরের শিশু(ছেলে)কে বড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে শিশুটির উপর যৌন হেনস্তার অভিযোগ ওঠে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এরপর অভিযুক্তের বিরুদ্ধে বসিরহাটের মাটিয়া থানায় শিশুটির পরিবার অভিযোগ দায়ের করেন কিন্তু ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত। অপরদিকে নির্যাতিতা শিশুটি বর্তমানে বসিরহাট জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অভিযোগ, ধৃত তরিকুল ও শিশুটির একই পাড়ায় বাড়ি ৷ তরিকুলের বাড়ির সামনে একটি মাঠে পাড়ার বাচ্চারা প্রতিদিন খেলাধুলা করে। ঘটনার দিনও খেলা করছিল ঐ শিশুটি। এরপর তরিকুল নিজের বাড়ি ফাঁকা থাকার সুযোগ নিয়ে ওই শিশুটিকে নিজের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় এবং শিশুটির উপর যৌন নির্যাতন চালায়। এরপর শিশুটি কান্নাকাটি করতে করতে বাড়ি ফিরে আসলে শিশুটির কান্নাকাটি দেখে তার বাবা মা কারন জিঙ্গাসা করলে শিশুটি সব ঘটনা খুলে বলে। এরপর তৎক্ষনাৎ শিশুটির বাবা ও পাড়া প্রতিবেশীরা তরিকুলের বাড়িতে যায়, কিন্তু তরিকুল ততক্ষনে বাড়ি ছেরে পালিয়ে যায় ।

পুলিশি সুত্রে খবর, ঘটনার খবর পাওয়ার পরই পুলিশ তাঁর গোপন সূএ অনুযায়ী ১৪ই মার্চ ভোরবেলায় বনগাঁ থেকে গ্রেফতার করেন অভিযুক্ত তরিকুল ইসলামকে। এরপর তাকে আদালতে পাঠানো হলে বিচারক অভিযুক্তকে ৩ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। অভিযুক্তের বাড়ি আরতদা এলাকায় এবং সে বাদুড়িয়ার এম এস কে স্কুলের শিক্ষক। বর্তমানে গোটা ঘটনা তদন্ত করে দেখছেন মাটিয়া থানার পুলিশ।

সম্পর্কিত সংবাদ