‘গোবিন্দ আগরওয়াল ও সুদীপ্ত রায়চৌধুরী দুজনেই প্রতারক, তাদের হয়ে কেন কথা বলছেন রাজ্যপাল?’, বিস্ফোরক কল্যাণ

 

আজ তৃণমূল ভবন থেকে সাংবাদিক বৈঠক করেন TMC সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি বলেন, “ইডির তদন্ত অনুযায়ী বিধাননগর পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। সুদীপ্ত রায়চৌধুরীর বিরুদ্ধে গরুপাচার, মানুষ পাচারের অভিযোগ। ইডির নাম করে ভুয়ো তথ্য পেশ করেছেন সুদীপ্ত রায়চৌধুরী। রোজভ্যালি ছাড়া আরও দুটি কেস যুক্ত হয়েছে। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা পিএমএলএ অ্যাক্টে তদন্ত করছে। গোবিন্দ আগরওয়াল ও সুদীপ্ত রায়চৌধুরী দুজনেই প্রতারক।”  তিনি আরও বলেন, “কলকাতা পুলিশের কাজের সমালোচনা করছেন রাজ্যপাল। দুই অভিযুক্তের পক্ষে কেন কথা বলছেন রাজ্যপাল ? তাহলে কি তদন্তে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছেন রাজ্যপাল? রাজ্যপালের সঙ্গে অপরাধীদের সরাসরি যোগাযোগ। বারবার মুখ্যমন্ত্রীকে টার্গেট করছেন জগদীপ ধনকড়। তদন্ত ঘুরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন রাজ্যপাল। কেউ তদন্তে বাধা দিলে ১৮৬ ধারায় শাস্তি হওয়া জরুরি। পুলিশ সহ সরকারি কর্মীদের হুমকি দিচ্ছেন রাজ্যপাল Jagdeep Dhankar। সরকারি কর্মী পদে থেকে কাজ করলে অনুমতি লাগে না। জগদীপ ধনকড়ের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা চালু করা উচিত।“

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply