গোষ্ঠীকোন্দল চরমে, দমদমে গেরুয়া পদ্ম সবুজ করে দিলেন বিজেপি কর্মীরাই

গোষ্ঠীকোন্দল চরমে, দমদমে গেরুয়া পদ্ম সবুজ করে দিলেন বিজেপি কর্মীরাই

প্রায় ৩ দশক ধরে যাঁরা বিজেপি করে আসছে, নতুন কমিটিতে তাদের জায়গা নেই, এমন অভিযোগ তুলে দলীয় কার্যালয়ের রং পাল্টে দিলেন বিক্ষুব্ধ কর্মীরা। রাতারাতি গেরুয়া থেকে হয়ে গেল সবুজ! বিজেপির অন্দরে গোষ্ঠীকোন্দলে সরগরম দমদমের ছাতাকল।

রাতের অন্ধকারে নিজের লোককে পদে বসানোর অভিযোগ উঠল দমদমের জেলা সভাপতি কিশোর করের বিরুদ্ধে। সাবেক বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ, দলীয় পদ অর্থের বিনিময়ে অন্য দল থেকে আসা লোকদের তুলে দিচ্ছে বর্তমান নেতৃত্ব। পুরনো কর্মীদের বঞ্চনা করে অর্থের জন্য রাতের অন্ধকারে পদে বসাচ্ছে নিজের লোকদের বসাচ্ছেন জেলা সভাপতি কিশোর কর। রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে অভিযোগ জানানো হলেও তিনি গুরুত্ব দেয়নি বলে দাবি তাঁদের।

উল্লেখ্য, গতকাল রাতে উত্তর কলকাতা শহরতলী জেলার সভাপতিদের নিয়ে একটি নতুন কমিটি তৈরি হয়। সেখানে রাজীব অধিকারিকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয় সাধারণ বিজেপি কর্মী রাখি চক্রবর্তীকে। দলে রাজীবের পদোন্নতি হওয়া মণ্ডল কমিটি থেকে সরে যান বলে খবর। কিন্তু নতুন কমিটিতে রাখিদেবী থাকায় দলের মধ্যে অসন্তোষ তৈরি হয়। অনেকের দাবি, অটলবিহারী বাজপেয়ি, লালকৃষ্ণ আদবানি, তপন শিকদারের দেখে বিজেপি করতেন তাঁরা। কিন্তু বর্তমান বিজেপি অর্থের বিজেপি হয়ে গিয়েছে।

এ দিন প্রতিবাদে দমদমের ছাতাকলে দলীয় কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে দেন পুরনো বিজেপি কর্মীরা। এমনকী দলীয় পোস্টার ও ফ্ল্যাগ খুলে ফেলেন তাঁরা।  ১৯৯২ সাল থেকে দমদম ছাতাকলে অবস্থিত বিজেপির পার্টি অফিসের গেরুয়া রঙ পরিবর্তে সবুজ করে দেওয়া হয়। এই ঘটনার প্রসঙ্গে কিশোর কর বলেন, “খবর এসেছে আমার কাছে। যাঁরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছে, তাঁদের সঙ্গে অবশ্যই কথা বলব। তবে, নতুন কমিটিতে পুরনো লোকেরাই রয়েছে।” দুর্নীতি প্রসঙ্গে কিশোরের মন্তব্যে, দলের মধ্যে এমন অভিযোগ ওঠেই।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *