অবশেষে জেলার সদর শহরে বন্ধ হলো প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পল মৈত্র, দক্ষিণ দিনাজপুরঃ

মার্চের ১ তারিখ থেকে জেলার সদর শহর বালুরঘাটে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ৪০ মাইক্রোনের নীচে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ব্যবহার করার সময় ধরা পড়লে ক্রেতার কাছ থেকে ৫০ টাকা ও বিক্রেতার কাছ থেকে ২০০ টাকা জরিমানা বাবদ নেওয়া হবে বলে পৌরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এই নিয়ে বালুরঘাট পৌরসভার পক্ষ থেকে অনেক আগেই মাইকিং করা হয়েছে শহর জুড়ে। ইতিমধ্যে বালুরঘাট তহবাজার ও সাহেব কাছারি বাজারে ব্যবসায়ীরা প্লাস্টিকের ব্যাগ দেওয়া বন্ধ করেছে। পেপার বা ব্যাগে করে দেওয়া হচ্ছে ক্রয় করা দ্রব্য সামগ্রী।

উল্লেখ্য, রাজ্যের অন্যান্য জেলার পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুরেও দেদারে বিক্রি ও ব্যবহৃত হচ্ছিল ৪০ মাইক্রোনের নীচের প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল। এমনিতেই উষ্ণায়নের ফলে হিমবাহের বরফ গলতে শুরু হয়েছে অনেক আগেই। প্রতিনিয়ত বাড়ছে দূষণের পরিমাণ। এমত অবস্থায় প্লাস্টিক বা থার্মকল ব্যবহার পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয় অন্যান্য জেলায় ও শহরে। এর দরুন দক্ষিণ দিনাজপুরের সদর শহর বালুরঘাটেও বিগত দিনে বেশ কয়েকবার নিষিদ্ধ করা হয়েছিল ৪০ মাইক্রোনের নীচের প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল বিক্রি এবং ব্যবহার। ধরপাকড়ও শুরু হয় উদ্যোগ নেওয়ার কয়েকদিন। তবে সময় যত গড়িয়েছে সব কিছু আগের মতই হয়ে গেছে। কিছুদিন আগেও শহরের সর্বত্র দেদারে বিক্রি ও ব্যবহার হতে থাকে নিষিদ্ধ প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল। নজরদারি ও তত্ত্বাবধানের অভাবে প্লাস্টিক বা থার্মকল কোনটাই সম্পূর্ণ বন্ধ করা সম্ভব হয়েছিল না। ফলে বিগত দিনে নেওয়া উদ্যোগ , উদ্যোগ অবস্থাতেই রয়ে যায়।

আর তাই ফের একবার বালুরঘাট শহরে ৪০ মাইক্রোনের নীচে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল ব্যবহার নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছে। পৌরসভা, ক্লাব, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন লাগাতার প্রচার চালিয়েছে শহর জুড়ে। অবশেষে ১লা মার্চ থেকে বালুরঘাটে সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে প্লাস্টিক ও থার্মকল বিক্রি ও ব্যবহার। এই নিয়ে গত ১০ই ফেব্রুয়ারি ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গে বৈঠকও করেন পৌরসভার চেয়ারম্যান রাজেন শীল। ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে পৌরসভার উদ্যোগকে স্বাগত জানানো হয়েছে। এছাড়াও প্ল্যাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল বন্ধ করতে শহরের কয়েক হাজার পড়ুয়া নিজেদের অভিভাবকদের মধ্যে পোস্ট কার্ড বিতরণ করে, যেখানে ক্যারিব্যাগ ব্যবহারের অপকারিতা উল্লেখিত। পাশাপাশি জেলা প্রশাসন, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা পৌরসভার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

এবিষয়ে বালুরঘাট পৌরসভার চেয়ারম্যান রাজেন শীল জানিয়েছেন, গত ১ তারিখ থেকে বালুরঘাটে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও থার্মকল ব্যবহার ও বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পুরো বিষয়ের নজরদারি চালানো হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

সম্পর্কিত সংবাদ