ঘর ভরে উঠেছে মদের বোতলে

ঘর ভরে উঠেছে মদের বোতলে

পল মৈত্র, দক্ষিণ দিনাজপুর:

ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্পের ঘর ভরে উঠেছে মদের বোতলে। স্বচ্ছ ভারত অভিযানের কেন্দ্রীয় লক্ষ লক্ষ টাকা বরাদ্দে নেওয়া সরকারি প্রকল্পের নামে চলছে হরির লুট। শুনতে কিছুটা অবাক মনে হলেও এই চিত্র ফুটে উঠেছে হিলির ধলপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতে। প্রকল্প মুখ থুবড়ে পড়ায় এলাকার পচনশীল ও অপচনশীল সামগ্রী জমছে হিলি-বালুরঘাট ৫১২ জাতীয় সড়কের ধারে। যার পচা দুর্গন্ধে নাভিশ্বাস উঠেছে পথচলতি মানুষদের। পরিবেশ দুষনের তোয়াক্কা না করে পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষের এমন ভুমিকায় ক্ষোভের পারদ জমেছে বাসিন্দাদের মধ্যে। পঞ্চায়েত প্রধানের ভুমিকা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

স্বচ্ছ ভারত বা নির্মল বাংলা মিশনের মাধ্যমে হিলির ধলপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত ২০১৬-১৭ অর্থ বরষে সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্প চালু করে। যার জন্য পঞ্চায়েতের উদ্যোগে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এলাকার লালপুরে নির্মিত হয় ওই কেন্দ্র। যেখানে পচনশীল ও অপচনশীল জিনিস রাখার ব্যবস্থার পাশাপাশি করা হয় তা থেকে জৈব সার তৈরির ব্যবস্থাও। পচনশীল জিনিস পচিয়ে তা থেকে কেঁচো সার তৈরি করে এলাকার কৃষকদের মধ্যে বিলি করাও উদ্দেশ্য ছিল ওই পঞ্চায়েতের। কিন্তু তা চালুর পর আর তেমনভাবে ওই প্রকল্প নিয়ে মাথা ঘামাতে দেখা যায় নি পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে। যার কারনে পচনশীল, অপচনশীল বা কেঁচো সার কোনো জায়গায় দেখা মেলে নি কিছু। শুধুমাত্র সেইসব জায়গা ভরে রয়েছে মদের বোতলে। অন্যদিকে ওই পঞ্চায়েতের যাবতীয় নোংরা আবর্জনা পরিবেশ দুষনকে উপেক্ষা করে অবাধে জাতীয় সড়কের ধারে জমা করছে পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ। যার পচা দুর্গন্ধ এ নাভিশ্বাস উঠেছে বাসিন্দাদের। হাজারো স্বচ্ছতার বানী প্রশাসনের তরফে বলা হলেও তার বিন্দুমাত্র যেন ওই পঞ্চায়েতের প্রধান ও তার কর্তৃপক্ষ কানে আজো পৌঁছায়নি। যাকে ঘিরেই ক্ষোভে ফুঁসছে বাসিন্দারা।

পঞ্চায়েত প্রধান উজ্জ্বল মন্ডলের অবশ্য বলেন, মানুষের সচেতনতার এখনো অনেক অভাব রয়েছে। এলাকায় ময়লা ফেলার জন্য আলাদাভাবে দুটি ভ্যান চালু রয়েছে।

হিলি বিডিও সঞ্জয় সুব্বা জানিয়েছেন, এমন ঘটনা জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে কি কারনে এমনটা ঘটেছে।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *