বাংলাদেশের সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আগুন, চরম দুর্ভোগে রোগীরা

বাংলাদেশের সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে আগুন, চরম দুর্ভোগে রোগীরা

মিজান রহমান, ঢাকাঃ রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের তৃতীয় তলায় স্টোর রুমে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ১৪ই ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে। তবে এতে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি। আগুনের ধোঁয়ায় ভরে গেছে গোটা হাসপাতাল। এতে রোগী ও স্বজনের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। তাদেরকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট প্রায় দেড় ঘণ্টা চেষ্টার পর রাত ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। আগুনের কারণ সম্পর্কে তাৎক্ষনিকভাবে ফায়ার সার্ভিস কিছু জানাতে পারেনি। আগুন নেভাতে গিয়ে শুরুতেই পানি পাচ্ছিল না ফায়ার ইউনিট। পরে কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের পুকুর থেকে পানি তুলে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। এ দিকে ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সন্ধ্যা ৫টা ৫৫ মিনিটে হাসপাতালের নতুন ভবন থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখে রোগীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। আগুন লাগার পরপরেই হাসপাতালটির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। পরে সোয়া ৭টার দিকে বিদ্যুৎ ফিরে আসে। সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে হাসপাতালের সকল রোগীদের হাসপাতাল প্রাঙ্গণের মাঠে নামিয়ে আনা হয়। সেখানেই তাদের চিকিৎসা প্রধান করা হয়। পরবর্তীতে কয়েক’শ অ্যাম্বুলেন্স করে এসব রোগীদের বিভিন্ন হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। অনেক রোগীকে স্বজনরা বাসায় নিয়ে গেছেন। এ দিকে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন।
তিনি এ সময় সাংবাদিকদের বলেন, আগুনে কারো হতাহতের খবর আমরা পাইনি। যত রোগী ছিল, তাদের সবাইকে বের করে আনা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক দেবাশীষ বর্ধন বলেন, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের দ্রুত নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট এক ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীদের সবাই নিরাপদে আছেন, দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই। তার উপস্থিতিতে রোগীদের চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, রোগীদের মধ্যে যারা একটু বেশি অসুস্থ তাদেরকে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করা হচ্ছে।

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.