বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা যেন জনারণ্য

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিজান রহমান, ঢাকাঃ ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা দেখতে দেখতে চলে এসেছে শেষ প্রান্তে। মাসব্যাপী ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শুক্রবারই শেষ হওয়ার কথা ছিলো। পরে মেলা কর্তৃপক্ষ আরো একদিন বাড়িয়ে তা শনিবার পর্যন্ত করেছে। সে হিসেবে ৮ই জানুয়ারি এবারের আয়োজনের শেষ শুক্রবার।

সাপ্তাহিক ছুটির এই দিনে মেলা প্রাঙ্গণে ছিল কেবলই মানুষ আর মানুষ। মানিক মিয়া এভিনিউ থেকে শেরেবাংলা নগরে মেলার মাঠ পর্যন্ত ছিল মানুষ আর পরিবহনের জট। ফলে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা সত্ত্বেও মেলায় ঢুকতে হিমশিম খেতে হয়েছে আগতদের। শুক্রবার ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।

মেলা ঘুরে দেখা যায়, শেষ সময়ে এসে বিভিন্ন স্টলে এখন চলছে মূল্যছাড়ের হিড়িক। প্রায় প্রতিটি পণ্যে বিভিন্ন হারে ছাড় দিয়ে ক্রেতা টানতে মরিয়া স্টলগুলো। সকাল থেকেই ঘোরাঘুরির পাশাপাশি মেলার সব ধরনের দোকানেই রয়েছে ভিড়। তবে দুপুর গড়িয়ে বিকেল হতেই সেই ভিড় আরো বাড়ছে।

দোকানিরা আশা করছেন, সন্ধ্যার আগে আগে বিক্রি আরো বাড়বে। আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় এবার দেশীয় পণ্যের দিকে ক্রেতার বেশ আগ্রহ দেখা গেছে। বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের আর্থিক সহায়তায় পাট পণ্যের বহুমুখীকরণ প্রতিষ্ঠান জেডিপিসি এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সহায়ক সরকারি প্রতিষ্ঠান এসএমই ফাউন্ডেশনের নেওয়া স্টলগুলোতে দেখা গেছে বেশ ভিড়। এতে পাট ও পাটজাত ব্যাগ, কুশন কভার পিলো কভার, পর্দা, ওয়াল ম্যাট, টেবিল ম্যাট, পাঠের তৈরি স্যুট, জুতা সহ বিভিন্ন পণ্য কিনতে হুমড়ি খেয়ে পড়তে দেখা গেছে ক্রেতাদের।

উল্লেখ্য, এবারের মেলায় প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাঁ ও স্টলের মোট সংখ্যা ৬০৫টি। এর মধ্যে প্যাভিলিয়ন ১১০টি, মিনি-প্যাভিলিয়ন ৮৩টি ও রেস্তোরাঁ সহ অন্যান্য স্টল রয়েছে ৪১২টি। বাংলাদেশ ছাড়াও ২৫টি দেশের ৫২ প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিয়েছে। ৯ জানুয়ারি শুরু হওয়া এই মেলা শেষ হবে শনিবার।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment