প্রধানমন্ত্রীর সভার মাঠ বদলের সিদ্ধান্তের কথা বলে পিছু হাটলেন শান্তনু ঠাকুর

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

জয় চক্রবর্তী, বনগাঁঃ  ঠাকুরনগরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভা ঘিরে দ্বৈরথ। ধর্মীয় আবেগর কথা বলে প্রধানমন্ত্রীর সভার মাঠ বদলের সিদ্ধান্তের কথা বলে পিছু হাটলেন শান্তনু ঠাকুর। রবিবার দুপুরে ঠাকুর বাড়িতে দুই দলের নেতাকর্মীদের উপ স্থিতিতে সরগরম। আগামী ২রা ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী মতুয়াদের পীঠস্থান ঠাকুরনগরে সভা করবেন। রবিবার ঠাকুর বাড়িতে অসেন বিজেপি নেতা মুকুল রায় ।


মুকুল বাবু বলেন, ” অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙ্ঘের ধর্ম সম্মেলনে আমন্ত্রন পেয়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী। এটি বিজেপির কোন রাজনৈতিক সভা নয়। ঠাকুরবাড়ির বড়বউ তৃণমূল সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর ওই মাঠেই ২৮শে জানুয়ারি থেকে ৫ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কীর্তন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন বলে জানা গিয়েছে। শান্তনু ঠাকুর তাঁর অনুগামী মতুয়াদের নিয়ে মাঠের দখল নেন।। মাঠ নিয়ে রবিবার সকাল থেকে ঠাকুরবাড়িতে উত্তেজনা ছড়ায়। কর্মসূচির অঙ্গ হিসেবে ২৮শে জানুয়ারি থেকে ৫ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কীর্তন হবে বলে জানা গিয়েছে।

শান্তনু ঠাকুর বলেন, ‘ঠাকুরবাড়ির মাঠ দেবত্ব সম্পতি’। জ্যোতিপ্রিয় বাবু বলেন, ” ঠাকুর নগরে প্রধানমন্ত্রীর সভায় আপত্তি নেই আমাদের। কিন্তু ঠাকুর বাড়িতে রাজনীতি ঢুকতে দেবনা। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বড়োমা মা-মেয়ের সম্পর্ক। ঠাকুর নগরকে তিল তিল করে গড়ে তুলেছে।” তিনি অভিযোগ করেন, সকালে ঠাকুর বাড়ির নাট মন্দীরে আরএসএস এর প্যারেট হয়েছে । রক্তদিয়ে বুক দিয়ে আটকাবো আরএসএস কে।”

বড়োমা মমতার বাইরে বেরোন না। মোদি এসে কোন লাভ হবেনা।”তিনি মুকুল বাবুর উদ্দেশ্যে প্রশ্ন করেন, কেন ঠাকুর বাড়িতে ঢুকলেন? বনগাঁ লোকসভার সব জায়গাতেই বিজেপিকে আটকানো হবে বলে জানান তিনি। সব মিলিয়ে ইতিমধ্যে চরম রাজনৈতিক উত্তেজনায় কাঁপছে মতুয়া ঠাকুরবাড়ি।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment