গৃহবধূকে হত‍্যার অভিযোগে গ্ৰেফতার স্বামী

গৃহবধূকে হত‍্যার অভিযোগে গ্ৰেফতার স্বামী

 

অর্ণব মৈত্র, বসিরহাটঃ বসিরহাটের বাদুড়িয়া থানার আরশুল্লাহ মাঝের পাড়া এলাকায় সদ্য বিবাহিত গৃহবধূকে খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার স্বামী। ধৃতের নাম সুদীপ্ত বসু। ধৃতকে আজ বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় বসিরহাটের বাদুড়িয়া থানার আরশুল্লাহ মাঝের পাড়া এলাকায় সদ্য বিবাহিত বছর ২৬-এর কল্যানী বসুকে গলায় ওড়নায় ফাঁস দিয়ে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার স্বামী সুদিপ্ত বসু। মূলত গত দুই মাস আগে বিয়ে হয় বাদুড়িয়ার কৃর্তীপুর নিবাসী কল্যানী বসুর সঙ্গে বাদুড়িয়ার আরশুল্লাহ এলাকার শ্যামল বসুর ছেলে সুদিপ্ত বসুর। সুদীপ্ত পেশায় মুরগী ব্যাবসায়ী। এই ঘটনার জেরে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

মেয়ের বাড়ির অভিযোগ, বিয়েতে সোনার গয়না, আসবাবপত্র এবং নগদ কয়েক হাজার টাকা দেওয়া হয়েছিল। তারপরেও আবার বাপের বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসার জন্য কল্যানীর উপর অত্যাচার চালানো হতো শ্বশুরবাড়ি থেকে।

কল্যানীর মা, শীপ্রা অধিকারি কাঁদতে কাঁদতে বলেন, “আমার মেয়ে গত বুধবার আমার বাড়িতে এসেছিল, ওইদিন আমার কাছ থেকে পাঁচশো টাকা ধার করে নিয়ে যায় এবং বলে তাকে তার মেয়ে অর্থাৎ কল‍্যানী আবার সেই টাকা ফেরত দিয়ে দেবে। এমনকি সম্প্রতি আমার জমি বেচে দিতেও বলে সম্পত্তি হাতানোর লক্ষ্যে। আজ না দেওয়ায় আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে ওর শ্বশুরবাড়ির লোকরা”।

অপরদিকে স্বামী সুদীপ্তর দাবি, “আমি বাড়িতে ছিলাম না,বাড়িতে এসে শুনি আমার স্ত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে । আমার মা একাই বাড়িতে ছিল, বসিরহাট জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষনা করে। আমার উপরে অভিযোগ করা হচ্ছে এটা ভিত্তিহীন।”

You May Share This
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.