দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে তৈরি হতে চলেছে আন্ডারপাস, বন্ধ ট্রেন চলাচল

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শান্তনু বিশ্বাস, বারাসাতঃ অবশেষে দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটল। বারাসতের ১২ নম্বর রেলগেটে একটি আন্ডারপাস পেতে চলেছে বারাসাতবাসী। ইতিমধ্যেই পাঁচ মিটার দৈর্ঘ্যের এই আন্ডারপাস তৈরীর জন্য কাজ শুরু করে দিয়েছে রেল। মূলত এর জেরেই প্রায় কুঁড়ি ঘন্টা বারাসাত থেকে শিয়ালদহ গামী ট্রেন চলাচল ব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।

রেল সুত্রে জানা যায়, ১৫ই ডিসেম্বর শিয়ালদহ থেকে বারাসাত গামী রুটে বন্ধ ট্রেন চলাচল। লেভেল ক্রসিংটি মেরামতের জেরে এদিন বারাসত ও মধ্যমগ্রাম স্টেশনের মাঝে কোনও লোকাল ট্রেন চলবে না বলে জানান রেল। তবে শিয়ালদহ থেকে মধ্যমগ্রাম পযর্ন্ত অন্যদিকে বনগাঁ, হাসনাবাদ থেকে বারাসাত স্টেশন পযর্ন্ত ট্রেন চলাচল করবে। এদিন রাত ১১টা থেকে ১৬ই ডিসেম্বর রাত ১১টা পর্যন্ত মধ্যমগ্রাম থেকে বারাসাত অবধি ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হবে। এমনকি বেশ কিছু ট্রেন বাতিলও করা হবে।

পূর্ব রেল সূত্রে খবর, শিয়ালদহ থেকে বারাসত পর্যন্ত আপ ও ডাউন মিলিয়ে দিনে মোট ১১০টি ট্রেন চলে। আর বারাসত- বনগাঁ ও বারাসত-হাসনাবাদ রুটে ট্রেনের সংখ্যা যথাক্রমে ১০০ ও ৪০। লোকাল ট্রেনগুলি দিনের কোনও সময়ে ফাঁকা যায় না। অফিস টাইমে তো রীতিমতো বাদুড়ঝোলা হয়ে যাতায়াত করতে হয় যাত্রীদের। তাই শনিবার রাত থেকে টানা কুঁড়ি ঘণ্টা শিয়ালদহ ও বনগাঁ রুটে আংশিক পরিষেবা পাবেন যাত্রীরা। তবে সপ্তাহের শেষদিকে এই সিদ্ধান্তে ভোগান্তির আশঙ্কা নিত্যযাত্রীদের। কারন দিনের ব্যস্ত সময়ে লোকাল ট্রেনে যাতায়াত করেন বহু মানুষ। তাই যাত্রীদের দুর্ভোগে কমাতেই শনিবার রাত থেকে ট্রেন চলাচল নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। যদিও সোমবার থেকে ফের পরিষেবা স্বাভাবিক হবে বলে মনে করা হচ্ছে।  

বারাসাত পৌরসভার পুরপ্রধান সুনীল মুখার্জি বলেন, “এই দুদিন ট্রেন চলাচল ব্যাহত হওয়ায় নিত্যযাত্রী ভোগান্তি লাঘব করতে পৌরসভার পক্ষ থেকে বহুল পরিমান বাস ও অটো, টোটোর ব্যবস্থা করা হবে।”

উল্লেখ্য, রেলের পক্ষ থেকে আন্ডারপাস তৈরীর শিলান্যাসও হয়েছিল প্রায় বছর ছয় আগে। তবে দেড়িতে শুরু হলেও স্বাভাবিকভাবে এই আন্ডারপাসের কাজ শুরু হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বারাসাতবাসী।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment