33 C
Kolkata
Wednesday, April 17, 2024
spot_img

অগ্নিকান্ড সন্ধ্যা বাজারের বহুতলে , বিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ

 

রাজীব মুখার্জী, সন্ধ্যা বাজার, হাওড়াঃ আজ দুপুরে হাওড়া ময়দানের সন্ধ্যাবাজার এলাকায় অগ্নিকাণ্ড। এই বিধ্বংসী অগ্নিকান্ডের জেরে হাওড়া ময়দান সন্ধ্যা বাজারের এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়াল। ৫১৪/৫১৫ জি. টি. রোডের এই বহুতলে আজ দুপুর ১ টা নাগাদ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে দমকলের ১টি ইঞ্জিন ছুটে যায় ও আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায়।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, এদিন দুপুর ১ টা নাগাদ এই আগুন লাগে। এমনকি ওই বহুতলে একাধিক অফিস ও ব্যাঙ্ক আছে। মূলত যেখানে আগুন লাগে সেই মিটার বক্সের পাশের দেয়ালের ওপারে রয়েছে একটি বেসরকারি ব্যাংকের এ. টি. এম. পয়েন্ট। মিটার বক্সে লাগা আগুনের ধোঁয়াতে ভোরে যায় ওই পয়েন্টটিও।

এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, "আমি দুপুরের ডিউটি করছিলাম। হঠাৎ পোড়ার গন্ধ পাই। ধোঁয়া ঢুকতে থাকে। আমি বেরিয়ে মিটার বক্সের দিকে যেতেই আগুনের ফুলকি। মুহূর্তে দাউ দাউ করে জ্বলে ওঠে পুরো মিটার বক্স। আমি রাস্তায় বেরিয়ে চিৎকার করে লোক ডাকি। আশেপাশের লোকেরা ছুটে আসে। বালির বস্তা ছিঁড়ে ওই আগুনে বালি দেওয়া হয়। রাস্তায় ট্রাফিক গার্ড থেকে দমকলে খবর দেওয়া হয়। "তবে কীভাবে আগুন লাগল তা নির্দিষ্ট ভাবে জানা না গেলেও শট সার্কিট থেকেই আগুন লেগেছে বলে অনুমান দমকলকর্মীদের।এই আগুন ক্রমেই ছড়াতে থাকে বাড়ির মূল অংশে। দমকলে খবর দেওয়া হলে সঙ্গে সঙ্গে দমকলের ১টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে ও নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে এসে পৌছায় হাওড়া থানার পুলিশ।

দমকল বিভাগের ইন্সপেক্টর সঞ্জয় দত্ত জানান, "মূলত শর্টসার্কিট হয়েই আগুন ধরেছে। মিটার বাক্স চেক করলে আরো পরিষ্কার বোঝা যাবে। যতটুকু দেখা যাচ্ছে তাতে বাড়ির ভিতরের মিটার বক্স থেকেই আগুন লেগেছে। পরিস্থিতি এখন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে। ঠিক সময়ে খবর দেয়াতে বড়ো বিপদ ঘটেনি। নাহলে অনেক বড়ো বিপদ ঘটতে পারতো। "

[espro-slider id=16087]

এদিন ঘটনার খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায় সি. ই. এস. সি. র লোকেরাও। গোটা বাড়ির বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। সি. ই. এস. সি. র এই দলের প্রধান মিস্ত্রি অমিয় জানা বললেন, "আমরা এই মুহূর্তে মেন লাইনের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিয়েছি। আমাদের লাইনে লোড এবং ওয়ারিং ঠিক রয়েছে। সমস্যা হয়েছে এই বাড়ির যে ওয়ারিং সেই তার কমজোরি ও অনেক পুরানো। বিদ্যুতের লোড নিতে না পারায় শর্ট সার্কিট হয়েছে। এর জেরেই সমস্ত তার পুড়ে গেছে। কোথাও কোনো রকমের বেআইনি লাইন এখনও দেখা যায়নি। আমরা এই মুহূর্তে দেখছি কতগুলি মিটারের সংযোগ থাকার কথা আর কটা রয়েছে। আমরা কনজিউমার নাম্বার ও মিটার নাম্বার ধরে চেক করছি। পুরো মিটার প্যানেলটাই পুড়ে গেছে তাই দেখতে অসুবিধা হচ্ছে। সময় লাগবে পুরো কাজ সম্পূর্ণ হতে। তদন্ত করে দেখবো যদি কোনো গাফিলতি ধরা পরে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে এখনও পর্যন্ত কেউ হতাহত হয়নি। বাড়ির পুড়ে যাওয়া তার নতুন করে লাগাণো হলে তারপরে বিদ্যুৎ সংযোগ করা হবে।"

উল্লেখ্য দ্রুত আগুন ছড়াতে শুরু করায় বাড়ির সমস্ত ঘর খালি করিয়ে দেওয়া হয়েছিল। পাশাপাশি ব্যাঙ্কের পরিষেবা আপাতত বন্ধ বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকার জন্য ব্যাঙ্কিং কাজও বন্ধ হয়ে আছে। মূলত সন্ধ্যাবাজারের ঘিঞ্জি এলাকা হওয়ায় প্রাথমিকভাবে আগুন নেভানোর কাজে সমস্যা দেখা দেয়। সেই কারণেই বাড়ি খালি করা হয়েছে।অগ্নিকান্ডের জেরে আশপাশের রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে এখনও অব্দি পুরসভার থেকে কেউ ঘটনাস্থলে আসেনি। ইতিমধ্যে এই ঘটনার জেরে এলাকায় আতঙ্ক রয়েছে।

Related Articles

Stay Connected

17,141FansLike
3,912FollowersFollow
21,000SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles