সোশ্যাল সাইটে প্রেমিকার বিয়ের ছবি দেখে আত্মঘাতী প্রেমিক

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

শান্তনু বিশ্বাস, হাবড়াঃ হাবড়া থানার অন্তরগর্ত ডহরথুবা এলাকার বাসিন্দা রনজিৎ বিশ্বাস ও রচিতা রায় চার বছর ধরে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে ছিল। এমনকি দুই পরিবারই তাদের ভালোবাসার কথা জানতেন এবং দুই পরিবারের মধ্যে যাতায়াতও ছিল। সম্প্রতি রচিতা তার বিয়ের ছবি সোশ্যাল সাইটে রঞ্জিতকে পাঠালে তা দেখেই রনজিৎ বিশ্বাস আত্মঘাতী হয় বলে অভিযোগ। এর জেরে আত্মহত্যায় প্ররোচনায় রচিতার বিরুদ্ধে হাবড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

পারিবারিক সুত্রে খবর, চার বছর ধরে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে ছিল রনজিৎ বিশ্বাস ও রচিতা রায়। কিন্তু ইদানীং রচিতা অন্য একটি ছেলের সাথে ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। এই নিয়ে দুজনের ভেতরে অশান্তিও চলছিল। যার ফলে রনজিৎ বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক ভাবে ভেঙে পরেছিল।

অভিযোগ, এরপরই চলতি মাসের ৩ তারিখ সোমবার রচিতা রঞ্জিতকে সোশ্যাল সাইটে তার বিয়ের ছবি পাঠালে তা দেখেই রঞ্জিত নিজেকে সামলাতে না পেরে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করে। যদিও ঘটনার পর সাথে সাথে রণজিতের পরিবার তাকে হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আরজিকর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। তবে আরজিকর হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালিন বৃহস্পতিবার রাত ৮টা নাগাদ রনজিৎ জীবন যুদ্ধে পরাজিত হয়। এরপরই গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। রণজিতের মৃত্যুর জেরে তার পরিবার এবং এলাকার বাসিন্দারা মিলে ৭ই ডিসেম্বর সন্ধ্যায় একটি মোমবাতি করেন।

পুলিশ সুত্রে খবর, রণজিতের পরিবার আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ তুলে রচিতার বিরুদ্ধে হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্তে নেমেছে হাবড়া থানার পুলিশ।

সম্পর্কিত সংবাদ

Leave a Comment