36 C
Kolkata
Saturday, April 20, 2024
spot_img

নিউটাউনের আইনজীবীর মৃত্যুতে সন্দেহের তীর স্ত্রী-র বিরুদ্ধে

 

অর্ণব মৈত্র, নিউটাউনঃ নিউটাউনের আইনজীবীর অস্বাভাবিক মৃত্যুতে পুলিশের হাতে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। শ্বাসরোধেই মৃত্যু হয়েছে আইনজীবী রজত দে-র। ময়না তদন্তের রিপোর্ট এমনই উল্লেখ রয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, অত্যন্ত সরু কিছু দিয়ে রজতের গলায় ফাঁস দেওয়া হয়েছিল। গলার চিহ্ন এতটাই সুক্ষ ছিল যে সেভাবে বোঝা যাচ্ছিল না। রিপোর্টে স্পষ্ট, রজতের গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। শ্বাসরোধের কারণেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে খুন, ষড়যন্ত্র ও তথ্যপ্রমাণ লোপাটের মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

[espro-slider id=15465]

ইতিমধ্যে আইনজীবী মৃত্যুর রহস্যের জট খুলতে তৎপর পুলিশ। এমনকি এই কেসের তদন্তের জন্য আলাদা একটি দল গড়া হয়েছে। দলে বিধাননগর কমিশনারেটের দুজন মহিলা অফিসার ছাড়াও গোয়েন্দা বিভাগের অফিসার ও নিউটাউন থানার তরফ থেকে তদন্তকারী অফিসারও রয়েছেন। ৩০শে নভেম্বর সকাল থেকে আইনজীবীর স্ত্রী এবং তার পরিবারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

মূলত ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পরেই আইনজীবী রজত দে'র বাড়ির সামনে বসানো হয়েছে পুলিশি পাহারা। ঘটনার দিন রাতে ফ্ল্যাটে কারা ছিলেন তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। ওই রাতে যেখানে খেতে গিয়েছিলেন দম্পতি, তার সিসিটিভি ফুটেজও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানা যায়। তাঁকে সংজ্ঞাহীন করার জন্য কিছু খাওয়ানো হয়েছিল কিনা তা জানার চেষ্টা চলছে। ভিসেরা টেস্টের জন্য ইতিমধ্যেই নমুনা পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে ঘটনার দিন রাতে আইনজীবীর শিশুপুত্র ও পোষ্যকে কেন বাড়িতে রাখা হয়নি তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। উল্লেখ্য, ফোনে কথা বলা নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হত রজত দে'র। এক্ষেত্রে স্ত্রীর কললিস্ট খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পাশাপাশি প্রাক্তন স্বামীর সঙ্গেও কথা বলবে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ নভেম্বর নিউটাউনের ডিবি ৯৭ ব্লকে উদ্ধার হয় হাইকোর্টের আইনজীবী রজত কুমার দে-এর মৃতদেহ। তাঁর স্ত্রী অনিন্দিতা পালও পেশায় আইনজীবী। রজতের বাবা সমীর কুমার দে নিউটাউন থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন, রজতের স্ত্রী অনিন্দিতা পাল, বাবা অলক পাল, মা সবরী পাল ও ভাই অভীক পাল এর বিরুদ্ধে।

Related Articles

Stay Connected

17,141FansLike
3,912FollowersFollow
21,000SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles